কলকাতা প্রচ্ছদ 

পরিচালন সমিতির দ্বারা নিয়োগকৃত শিক্ষকদের বেতন চালুর নিদের্শ শীর্ষ আদালতের

শেয়ার করুন
  • 96
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মাদ্রাসা শিক্ষা দফতরের তুঘলকি কান্ডের কড়া জবাব দিল শীর্ষ আদালত। আজ মাদ্রাসা সাভির্স কমিশনের বৈধতা মামলার শুনানী করতে গিয়ে বিচারপতি অরুণ মিশ্র এবং বিচারপতি উদয় উমেশ ললিত এক আদেশ জারি করে বলেছেন,যেসব মাদ্রাসা পরিচালন সমিতি ৩ মার্চ২০১৬-র আগে শিক্ষক নিয়োগ করেছিল সেইসব শিক্ষকের নিয়োগের দিন থেকে বেতন রাজ্য সরকারকে এক্ষুণি চালু করতে হবে।উল্লেখ্য,কলকাতা হাইকো্র্টের ডিভিসন বেঞ্চের রায়ের পর বেশ কয়েকটি মাদ্রাসা পরিচালন সমিতি শিক্ষক নিয়োগ করেছিল। কিন্ত হঠাৎ এক আদেশনামা জারি করে মাদ্রাসা শিক্ষা দফতর জানিয়ে দেয়,সবোর্চ্চ আদালতে মামলার নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নিয়োগকৃত প্রায় ৭০ জন শিক্ষকের বেতন বন্ধ থাকবে। আজ শীর্ষ আদালতের ডিভিসন বেঞ্চ স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে,৩ মার্চ ২০১৬-র আগে যেসব শিক্ষক নিয়োগ করেছে মাদ্রাসা পরিচালন সমিতি, সেইসব শিক্ষকদের নিয়োগ হওয়ার দিন থেকে বেতন দিতে হবে রাজ্য সরকারকে। এই নিদের্শ অবিলম্বে কার্যকরী করতে বলেছে শীর্ষ আদালত।

এ প্রসঙ্গে মামলাকারীদের আইনজীবী আবু সোহেল বলেছেন,মাদ্রাসা পরিচালন সমিতি যেসব শিক্ষক নিয়োগ করেছিল তাদের বেতন হঠাৎই সরকার বন্ধ করে দেয়। আজকের রায়ে এটা স্পষ্ট আমাদের শিক্ষক নিয়োগ বৈধ ছিল। তিনি রাজ্যের সমস্ত মাদ্রাসার পরিচালন সমিতির কাছে আবেদন করেন ,সবোর্চ্চ আদালত যখন মাদ্রাসা শিক্ষা দফতরের জারি করা ৩ মার্চ ২০১৬-র সাকুর্লার অনুসারে শিক্ষক নিয়োগে বৈধতা দিয়েছেন সেই পথেই শিক্ষক নিয়োগ হওয়া কাম্য। তিনি আরও বলেছেন,ডিভিসন বেঞ্চের আজকের এই আদেশে মামলাকারী পরিচালন সমিতিরই নৈতিক জয় হয়েছে।


শেয়ার করুন
  • 96
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment