খেলা 

মুহাম্মদ সামির অনবদ্য হ্যাটটিকে ভর করেই ভারতের সম্মান রক্ষা পেল ; আফগানিস্তান ১১ রানে হেরে গেল

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সাউদাম্পটন বোলের বাইশ গজে যেন ভারতের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিল আফগান বাহিনী । বল হাতে একের পর এক বিশ্বের তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানদের রীতিমত চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল আফগানিস্তানের ক্রিকেট টিম । একটা সময় মনে হয়েছিল বিশ্বজয়ী ভারত এবার হয়তো আফগানিস্থানের কাছে হেরে যেতে পারে । অঘটন ঘটতে চলেছে । ঠিক সেই জ্বলে উঠলেন মুহাম্মদ সামি ।

শেষ ওভারে যখন ১১ রান বাকী । ক্রিজে তখন আফগানিস্তানের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান মুহাম্মদ নবী । প্রয়োজন ৬ বলে ১১ রান । তীব্র উত্তেজনা । সমগ্র বিশ্ব ভাবতে শুরু করেছে ভারত আজ আফগানিস্তানের কাছে হেরে যাবে । ঠিক তখনই বল করতে এলেন মুহাম্মদ সামি । প্রথম বল কোনো রকমে সামলালেন । দ্বিতীয় বলে ক্যাচ আউট । তৃতীয় বলে বোল্ড । চতুর্থ বলে বোল্ড । হ্যাটটিক করলেন মুহাম্মদ সামি একই সঙ্গে দলকে জিতিয়ে দিলেন । প্রায় ৩৩ বছর পর বিশ্বকাপ ক্রিকেট ম্যাচে হ্যাটটিকের পর আবার ভারতীয় দলের একজন ক্রিকেটার হ্যাটটিক করলেন । চেতন শর্মার পর আবার মুহাম্মদ সামি রের্কড করলেন ।

১০ বল খেলে মাত্র এক রান করেন মুজিব উর রহমানের বলে বোল্ড হন এই বিশ্বকাপে দু’টি সেঞ্চুরিকারী ভারতীয় ওপেনার৷ ১০ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ২৬ রান দিয়ে রোহিতের উইকেট তুলে নেন মুজিব৷ ৫৩ বলে ৩০ রানের ইনিংস খেলে নবির শিকার হন রাহুল।

প্রথম পাওয়ার প্লে অর্থাৎ প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ৪১ রান তোলে ভারত৷ ক্রিজে বিরাট কোহলির মতো প্লেয়ার৷ বিশেষজ্ঞরা ব্যাটিং পিচ বললেও ম্যাচ গড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্লো হতে থাকে হ্যাম্পশায়ার বোলের বাইশ গজ৷ পরের পাওয়ার প্লে অর্থাৎ ১১ থেকে ৪০ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৩৪ রান তোলে ভারত৷ অর্থাৎ ড্রেসিংরুমে ফিরে যান রাহুল, বিজয় শংকর ও বিরাট কোহলি৷ ব্যক্তিগত ৬৭ রানে আউট হন ভারত অধিনায়ক৷ রক্ষণাত্মক ব্যাটিং করেই ভারতের ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন কোহলি৷ কিন্তু নবির বলের রহমত শাহের হাতে ক্যাচ দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন বিরাট৷ বিরাট যখন আউট হন, তখন ভারতের স্কোর ছিল চার উইকেটে ১৩৫৷ ৬৩ বলে মাত্র পাঁচটি বাউন্ডারি মারেন কোহলি৷

স্লো পিচে বড় রান করতে পারেননি ধোনিও৷ ৫২ বল খেলে মাত্র ২৮ রান করেন মাহি৷ মাত্র তিনটি বাউন্ডারি মারেন ধোনি৷ কেদার যাদবের হাফ-সেঞ্চুরিতে মানরক্ষা হয় ভারতের৷ তাঁর লড়াকু ইনিংসে দু’শো রানের গণ্ডি টপকায় ‘মেন ইন ব্লু’৷ বড় রান করতে ব্যর্থ হার্দিক পান্ডিয়া৷ মাত্র ৭ রান করে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন পান্ডিয়া৷ ৫২ রান করে ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হন কেদার৷ শেষমেষ আফগানদের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রানেই থমকে যায় ভারতের ইনিংস।

৪৮ তম ওভারে শামি খরচ করেন ৩ রান। ৪৯ তম ওভারে বুমরাহ দেন ৫ রান। শেষ ওভারে আফগানিস্তানের জয়ের জন্য প্রয়োজন হয়ে দাঁড়ায় ১৬ রান। অন স্ট্রাইক নবি প্রথম বল বাউন্ডারিতে পাঠালেও দ্বিতীয় বল ডট দেন শামি। এরপর দুরন্ত কামব্যাক করে পরপর তিন বলে তিন উইকেট তুলে নিয়ে দলের রুদ্ধশ্বাস জয় নিশ্চিত করেন শামি। সেইসঙ্গে চেতন শর্মার পর দ্বিতীয় ভারতীয় বোলার হিসেবে বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিকের নজির গড়েন বঙ্গ পেসার। এই জয়ের ফলে ইংল্যান্ডকে টপকে লিগ টেবিলে তিন নম্বরে উঠে এলেন কোহলিরা। ৫ ম্যাচে ভারতের সংগ্রহ ৯ পয়েন্ট।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment