দেশ 

”আমি খুশি, আমার সরকার গত পাঁচ বছরে আপামর মানুষের মৌলিক সমস্যাগুলি মেটাতে এগিয়ে এসেছে। মানুষের কাছে পৌঁছতে পেরেছে ”: রামনাথ কোবিন্দ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সপ্তদশ লোকসভার অধিবেশনের উদ্বোধন করতে গিয়ে মোদী সরকারের উন্নয়নমূলক কাজকর্মের ভূয়সী প্রশংসা করে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ বলেন, ‘‘উন্নয়নমূলক কাজকর্মের গতি অব্যাহত রাখার পক্ষেই বার স্পষ্ট মত দিয়েছেন দেশের মানুষ।’’

রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ দিন বলেন, ‘‘বহু দিন ধরে দেশের আপামর মানুষের মৌলিক সমস্যাগুলির উপর নজর দেওয়া হয়নি। সেগুলি মেটানো হয়নি। আমি খুশি, আমার সরকার গত পাঁচ বছরে আপামর মানুষের সেই মৌলিক সমস্যাগুলি মেটাতে এগিয়ে এসেছে। মানুষের কাছে পৌঁছতে পেরেছে। অসীম দারিদ্র থেকে মানুষকে বের করে আনতে পেরেছে। দেশবাসীর যা যা পাওয়ার অধিকার রয়েছে, মোদী সরকার সেই সবের ব্যবস্থা করে মানুষকে মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে দিতে পেরেছে। সরকার কাজ করেছেসবকা সাথ, সবকা বিকাশে মন্ত্র নিয়েই। আর মানুষ যে তাতে সন্তুষ্ট তার প্রমাণ, দেশের ৬১ কোটি মানুষ বার ভোট দিয়েছেন। লক্ষ্য স্থির করে এগিয়ে যেতে পারলে আগামী দিনে দেশের নাগরিক গ্রামীণ জীবন, দুইয়েরই আরও উন্নতি হবে।

গত পাঁচ বছরে মোদী সরকারের কোন কোন কাজকর্ম, পদক্ষেপ সকলের নজর কেড়েছে, প্রশংসা আদায় করে নিয়েছে, দিন সংসদের দুই কক্ষের যৌথ অধিবেশনে তাঁর বক্তব্যে সেই সবেরও উল্লেখ করেছেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ। তার মধ্যে যেমন রয়েছে জল সংরক্ষণ জাতীয় নিরাপত্তার মতো বিষয়, তেমনই রয়েছে ভারতের দাবি মেনে নিয়ে কট্টর সন্ত্রাসবাদী মাসুদ আজহারকে রাষ্ট্রপুঞ্জেরআন্তর্জাতিক জঙ্গিঘোষণা তিন তালাকের মতো ইস্যুগুলিও।

রাষ্ট্রপতি আরও কোবিন্দ বলেন, ‘‘জল সংরক্ষণে জল শক্তি মন্ত্রক গঠন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সার্জিকাল স্ট্রাইক বালাকোটে জইশমহম্মদের জঙ্গি ঘাঁটির উপর বিমানবাহিনীর বোমাবর্ষণের ঘটনা প্রমাণ করেছে জাতীয় নিরাপত্তাকে কতটা গুরুত্ব দেয় আমার সরকার। দাবিতে দীর্ঘ দিন ধরে অনড় থেকে আমার সরকারই রাষ্ট্রপুঞ্জকে দিয়ে মাসুদ আজহারকেআন্তর্জাতিক জঙ্গিঘোষণা করিয়ে নিতে পেরেছে। আমার সরকার দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে আগামী পাঁচ বছরে ৫০ শতাংশ আসন বাড়ানোরও পরিকল্পনা নিয়েছে। তাতে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে আসনসংখ্যা আরও দুকোটি বাড়বে। তিন তালাক, নিকাহ হালালার মতো প্রথাগুলি সামাজিক উন্নয়নের স্বার্থেই অবলুপ্ত হওয়া উচিত। তা ছাড়াও জিএসটির স্তর সরলীকরণের লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়ার ভাবনা রয়েছে সরকারের মাথায়।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment