জেলা 

কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী কাটমানি খাওয়ার অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করল তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধানকে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মুখ্যমন্ত্রী রাজধর্ম পালন করতে শুরু করলেন । গতকালই নজরুল মঞ্চে দলের কাউন্সিলারদের সঙ্গে বৈঠক করার সময় তিনি জানিয়ে দেন কে কোথায় কত টাকা কাটমানি তুলছেন তা তিনি অবহিত । এবার থেকে এসবের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে । তৃণমূল নেত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই হুঁশিয়ারি দেওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই কোটি টাকা তছরূপের অভিযোগে গ্রেফতার হলেন মালদহের তৃণমূল নেতা সুকেশ যাদব। কাটমানি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরেই এই গ্রেফতার। বিডিও-র অভিযোগের ভিত্তিতে এই গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

মঙ্গলবার নজরুল মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী কাটমানি নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। ২ হাজার টাকায় ২০০ টাকা কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ যে তিনি পেয়েছেন তাও জানিয়ে দলের নেতাদেরই সতর্ক করেছিলেন তিনি। এদিন সকালে একদিকে যেমন পঞ্চায়েতের তৃণমূল নেতাদের বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয় তৃণমূল ছাড়াও বিজেপি, ঠিক তেমনই অন্যদিকে তৃণমূল নেতার গ্রেফতারের খবরও এসেছে।

এদিন গ্রেফতারের পর আদালতে তোলা হয় মালদহের রতুয়ার তৃণমূল নেতা সুকেশ যাদব। সূত্রের খবর অনুযায়ী তিনি মহানন্দটোলা এলাকার পঞ্চায়েত প্রধানও বটে। একাধিক সরকারি প্রকল্প থেকে প্রায় ১ কোটি টাকা তছরূপের অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। রতুয়া ১-এর বিডিও অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। তারপরেই এই গ্রেফতার বলে জানা গিয়েছে। যদিও অভিযুক্ত নেতা নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী কড়া হুঁশিয়ারি পর ২৪ ঘন্টা কাটার আগেই, বীরভূমের ইলামবাজারে পঞ্চায়েত সদস্য উত্তম বাউড়ি এবং রাজীব আকুরের বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামবাসীরা। তাঁদের হাতে ছিল

তৃণমূলের পতাকা। সেই পতাকা দুই নেতার বাড়ির বিভিন্ন জায়গায় লাগিয়ে দেন তাঁরা।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, ওই দুই নেতা কাটমানির কথা অস্বীকার করেছেন। দলের একাংশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করেছেন তাঁরা।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment