দেশ 

দলনেতা নির্বাচিত হওয়ার পর সংসদের প্রথম ভাষণে অধীর দ্ব্যর্থহীনভাবে কংগ্রেসের নীতি আদর্শ ও ধর্মনিরপেক্ষতার কথা তুলে ধরলেন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী  সাংসদ হিসাবে শপথ গ্রহণের দিন কংগ্রেস দল তাঁর নিজের আদর্শ নিয়ে চলবে । সংখ্যায় কম হলেও তারা নীতি –আদর্শ থেকে সরে যাবে না । আজ লোকসভার স্পীকার নির্বাচনের পর সংসদে বৃহত্তম বিরোধী দলের নেতা হিসাবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বাংলার জনপ্রিয় কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরি কংগ্রেসের সেই আদর্শের কথায় তুলে ধরলেন ।

তিনি এদিন বলেন , “ যখন মাওলানা মসজিদে রামকে দেখতে পাবেন । যখন পুরোহিত মন্দিরে রহমানকে দেখতে পাবেন । যখন মানুষ মানুষের মধ্যে শুধু মানুষকে দেখতে পাবে । তখন দুনিয়া বদলে যাবে ।” সংসদে আজ বিরোধী দলের নেতা হয়ে নিজের প্রথম ভাষণেই ঝড় তুললেন বহরমপুরের সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী। বুধবার লোকসভায় স্পিকার নির্বাচনের পর তাঁর ভাষণে বিরোধী বেঞ্চ তো বটেই করতালির ঝড় ওঠে ট্রেজারি বেঞ্চেও।

সংসদে শপথের সময়ে গত কয়েকদিন ধরে যে ভাবে বিভিন্ন ধর্মীয় স্লোগান তোলা হয়েছে তার বিরোধিতা করে অধীর চৌধুরি এদিন বলেন, “ভারতের গণতন্ত্র বহুদলীয় গণতন্ত্র। তাই আপনাকে নিরপেক্ষ থাকতে হবে। কখনও জয় শ্রী রাম, কখনও আল্লা হু আকবর, কখনও জয় কালী বলে যে নজির তৈরি করলেন সাংসদরা তা ঠিক নয়। সংসদের মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রাখতে হবে।”

এ দিন প্রত্যাশা মত স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হন  রাজস্থানের কোটার সাংসদ ওম বিড়লা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তাঁকে স্পিকারের আসন পর্যন্ত পৌঁছে দেন অধীরবাবু। তার পর তাঁর ভাষণের সময় যখন আসে, তখন কার্যত ঝড় তোলেন তিনি। একটি হিন্দি কবিতার কয়েক লাইন উল্লেখ করে নতুন স্পিকারের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছাবার্তায় বহরমপুরের সাংসদ বলেন, “খুদাসে কেয়া মাঙ্গু, তেরে ওয়াস্তে, সদা খুশিসে ভরে হো তেরে রাস্তে। হসি তেরে চ্যাহেরে পে রহে ইস তরাহ, খুশবু ফুলও কে সাথ রহতি হ্যায় জিস তরাহ।”

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার অধীরবাবুকে লোকসভায় কংগ্রেসের পরিষদীয় দলের নেতা নির্বাচিত করে দল। বাংলার কাছে এটা যে একটা বড়ো প্রাপ্তি  বলাই বাহুল্য। সেই সঙ্গে আরও একটা প্রাপ্তি হল, লোকসভা স্পিকারের বাম দিকের আসনের প্রথম সারিতেই বসতে দেখা গিয়েছে অধীরবাবুকে। সনিয়া, রাহুলরা ছিলেন তাঁর বাম দিকে।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment