দেশ 

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পরেই কর্ণাটকের পুরসভা নির্বাচনে অপ্রত্যাশিত ফল কংগ্রেসের ; কর্ণাটক থেকেই কী ঘুরে দাঁড়াবে কংগ্রেস !

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে কর্ণাটক রাজ্যে কংগ্রেস এবং তার জোট সঙ্গী জেডি (এস) –র ব্যাপক ভরাডুবি হয়েছে । কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে হেরে গেছেন । কিন্ত লোকসভা ভোটের পরেই ওই রাজ্যে অনুষ্ঠিত হয় ২০টি জেলায় পুরসভা ভোট । সেই ভোটে উল্লেখ্যযোগ্য ভাবে বেশি আসন পেয়েছে কংগ্রেস । এরপর দ্বিতীয় স্থানে আছে বিজেপি । এখানে কংগ্রেসের সঙ্গে জেডি (এস ) এর কোনো জোট হয়নি । একা লড়াই করেছে কংগ্রেস ।

দেখা যাচ্ছে কর্ণাটকের ২০ জেলায় মোট ১২২১ ওয়ার্ডে ভোট  হয়েছিল। যার মধ্যে ৫০৯ টি ওয়ার্ডেই জিতেছে কংগ্রেসের প্রার্থীরা। অন্যদিকে বিজেপির ঝুলিতে গিয়েছে ৩৬৬টি আসন। রাজ্যে কংগ্রেসের জোট শরিক জেডিএস স্থানীয় নির্বাচনে একা লড়াই করেছিল। তাদের ঝুলিতে গিয়েছে ১৭৪টি ওয়ার্ড। নির্দল প্রার্থীদের দাপট কিছু কম নেই এই নির্বাচনে। তাদের দখলে রয়েছে ১৬০টি ওয়ার্ড। বিএসপি তিনটি, সিপিএম দু’টি এবং অন্যান্যরা সাতটি ওয়ার্ডে জিতেছে।

তবে লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির কয়েকদিন পরেই পুরসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সাফল্য উজ্জীবিত করেছে হাত শিবিরের নেতাদের। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সাফল্য পেয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা জানিয়েছেন যে লোকসভা নির্বাচন হয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের তত্ত্বাবধানে। যারা ইভিএম পরিচালনা করে। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে হওয়া ভোটে বিজেপি জিততে পারে না বলে দাবি করেছেন কংগ্রেসের মুখপাত্র।

কর্ণাটকে পুরসভা নির্বাচনের ফলেই স্পষ্ট হয়েছে ওই রাজ্যের তৃণমূল স্তরে কংগ্রেসের সমর্থন এখনও অটুট । আর এতেই কংগ্রেস আবার ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছে ।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment