দেশ 

বেকারত্ব বেড়েছে মোদী সরকারের পাঁচ বছরে শ্রম দফতরের রিপোর্টে উঠে এল এই ভয়াবহ চিত্র

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পাঁচ বছর আগে মোদী সরকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বছরে দুকোটি বেকারের চাকরি দেবেন । কিন্ত বিপুল গরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসার পরও সেই প্রতিশ্রুতি পালন তো দূর-অস্ত বেকার সমস্যা আরও তীব্র হয়েছে । যা ৪৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম এত বেকার সমস্যা বলে বিশেষঞ্জরা মনে করছেন । দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পরেই মোদী সরকারের শ্রম দফতরের রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার পর চরম অস্বস্তিতে বিজেপি ।

কেন্দ্রের শ্রমমন্ত্রকের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। সেই রিপোর্ট অনুসারে, ২০১৭-১৮ সালে সমগ্র ভারতে বেকারত্বের হার ছিল ৬.১ শতাংশ। যা গত ৪৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। ওই রিপোর্টের তথ্য অনুসারে। দেশের শহরাঞ্চলের বেকারত্বের হার ছিল ৭.৮ শতাংশ। আর গ্রামের ক্ষেত্রে সেই হার ৫.৩ শতাংশ। পুরুষ এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে সেই হার যথাক্রমে ছিল ৬.২ এবং ৫.৭ শতাংশ।

চলতি বছরের শুরু দিকে এই তথ্য ফাঁস হয়ে গিয়েছিল সংবাদ মাধ্যমে। যা নিয়ে মোদী সরকারের সমালোচনার ঝড় ওঠে সমগ্র দেশে। ওই রিপোর্ট নিয়ে আসরে নামে বিরোধী দলগুলি। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী তিব্র আক্রমণ করতে শুরু করেন। একই উপায়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমন করতে শুরু করেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মোদী জমানাতেই ১৯৭০-৭১ সালের পরে দেশের বেকারত্বের হার সর্বোচ্চ হয়েছে এই বিষয়টি মানতে নারাজ ছিল কেন্দ্র। তবে ফাঁস হয়ে যাওয়া রিপোর্ট যে ভুল নয় সেটিও মেনে নেওয়া হয়েছিল। সেই সময়ে কেন্দ্রের যুক্তি ছিল শ্রমমন্ত্রকের যে রিপোর্ট সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে সেটি সমীক্ষার খসড়া মাত্র। চূড়ান্ত রিপোর্ট নয়। বৃহস্পতিবার সেই চূড়ান্ত রিপোর্ট সামনে এসেছে। যা প্রথম মোদী সরকারের রেজাল্টে লাল কালির দাগ কেটেছে।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment