কলকাতা 

রাজীব কুমারকে জালে ফেলতে মরিয়া সিবিআই ; কী করছে এখন সিবিআই জানতে চান ? ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সিবিআই-র ঘুম ভেঙেছে । সারদা মামলার দ্রূত তদন্ত করতে চাইছে । ইতিমধ্যে এই মামলায় জেরা করার জন্য দুবার নোটিশ পাঠিয়েছে সিবিআই রাজীব কুমারকে । কিন্ত রাজীব কুমার এখনও সিবিআই-র কাছে যাননি । বরং তিনি সময় চেয়ে নিয়ে বারাণসীতে নিজের পৈতৃক বাড়িতে গিয়ে বিজেপির এক প্রভাবশালী নেতার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছেন বলে সূত্রের খবর । এদিকে বসে নেই সিবিআই । তারা এবার রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে আরও কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার লক্ষ্যে আইনি পরামর্শ নিচ্ছে । একই রাজীব কুমারকে জালে ফেলতে আরেক আইপিএস অফিসার অর্ণব ঘোষকে তলব করেছে ।

আজ সকালে ১০টার পর সিজিও কমপ্লেক্সে যান এসএস সিআইডি অর্ণব ঘোষ। উল্লেখ্য, আজই অর্ণবকে সিজিও কমপ্লেক্সে ডেকে পাঠায় সিবিআই। এদিন সকাল ১১টার মধ্যে সিজিও কমপ্লেক্সে অর্ণব ঘোষকে হাজিরা দিতে নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। উল্লেখ্য, সারদা তদন্তে যে সিট গঠন করা হয়েছিল, তাতে দু’নম্বর তদন্তকারী আধিকারিক হিসেবে ছিলেন অর্ণব ঘোষ। রাজীব কুমারের পরই সিটের শীর্ষ আধিকারিক ছিলেন অর্ণব। সেসময় বিধাননগরের ডিসি ডিডি ছিলেন তিনি। এর আগে একাধিক জেলার পুলিশ সুপার পদেও কর্মরত ছিলেন অর্ণব। সম্প্রতি তাঁকে এসএস সিআইডি পদে নিযুক্ত করা হয়েছে। অর্ণব ঘোষকে সিবিআইয়ের তলব তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

সিবিআই সূত্রে খবর, অর্ণব ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ করে গুরুত্বপূর্ণ নথি সামনে আসতে পারে। পাশাপাশি প্রভাবশালী যোগ সম্পর্কে অনেক তথ্য উঠে আসতে পারে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও বহুবার অর্ণব ঘোষকে সমন পাঠিয়েছিল সিবিআই। জিজ্ঞাসাবাদ এড়াতে সিবিআইয়ের সমনের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন অর্ণব। হাইকোর্টের নির্দেশে অর্ণবকে সমন পাঠানোর ব্যাপারে স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। তবে সেই স্থগিতাদেশের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে বলে খবর। সুতরাং এখন অর্ণবকে সমন পাঠানোর ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই সিবিআইয়ের। অর্ণবের পাশাপাশি এদিন কলকাতা পুলিশের আরেক আধিকারিক দিলীপ হাজরাকেও তলব করেছে সিবিআই।অন্যদিকে, মঙ্গলবার সারদাকাণ্ডের প্রথম তদন্তকারী আধিকারিক প্রভাকর নাথকে সিজিও কমপ্লেক্সে জিজ্ঞাসাবাদ করেন সিবিআই আধিকারিকরা। উল্লেখ্য, সারদাকাণ্ডের তদন্তে এর আগেও একাধিক বার তলব করা হয়েছিল প্রভাকরকে। কিন্তু বহুবার তলব সত্ত্বেও তিনি হাজিরা দেননি। আগে ইলেক্ট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানায় কর্মরত ছিলেন প্রভাকর। সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রভাকরকে ফের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হতে পারে।

এদিকে রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরওয়ানা জারি করার জন্য আদালতে যেতে পারে সিবিআই। ইতিমধ্যেই সিবিআই আধিকারিকরা এ বিষয়ে আইনজীবীদের পরামর্শ নিয়েছেন বলে জানা গেছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment