কলকাতা 

মুকুল রায়ের হাত ধরে ভাটপাড়া সহ ৫ পাঁচ পুরসভা ; বামসহ দুই তৃণমূল বিধায়ক বিজেপিতে; হাতছাড়া হচ্ছে পঞ্চায়েতও ; আগামী মাসে সাত দফাতেই বাংলায় ফিনিস হবে তৃণমূল দাবি কৈলাশের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লোকসভা ভোটের ফল বের হওয়ার পর তৃণমূল ছেড়ে এক সঙ্গে এত নেতা কাউন্সিলার ও পঞ্চায়েত প্রতিনিধি এই প্রথম বিজেপিতে যোগ দিল । সংবাদ মাধ্যমের ভাষায় মেগা যোগদান । সোমবারই সংকেত পাওয়া গিয়েছিল ; মঙ্গলবার তা বাস্তব হিসাবে রূপদান করল । এক ধাক্কায় তৃণমূলের কাছ থেকে ৫টি পুরসভা কেড়ে নিল বিজেপি । এই পাঁচ পুরসভার সিংহভাগ কাউন্সিলারই যোগ দিয়েছে বিজেপিতে । এমনকি খানাকুল পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি সহ ৯টি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আজ যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে।

এছাড়াও মঙ্গলবার দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে পদ্মপতাকা হাতে তুলে নেন বীজপুরের তৃণমূলের বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। শুভ্রাংশুর পাশাপাশি এদিন আরও দুই বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দিলেন। বিজেপিতে যোগ দিলেন বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তুষারকান্তি ভট্টাচার্য ও হেমতাবাদের সিপিএম বিধায়ক দেবেন্দ্র রায়।  অন্যদিকে, মমতা বাহিনীকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে একঝাঁক তৃণমূল কাউন্সিলর এদিন বিজেপিতে যোগ দিলেন।  কাঁচরাপাড়া, হালিশহর ও নৈহাটি পুরসভার দখল নিল বিজেপি।

যোগদান পর্ব শেষে সাংবাদিক বৈঠকে মুকুল রায় বলেন, ‘‘কাঁচরাপাড়া পুরসভার মোট আসন ২৪। পুরসভার চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান-সহ ১৭ জন বিজেপিতে যোগ দিলেন, ফলে এই পুরসভা এখন বিজেপির। হালিশহর পুরসভায় মোট আসন ২৩। ১৭ চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যান-সহ ১৭ কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগ দিলেন। হালিশহর পুরসভা তৃণমূলের নয়, বিজেপির। নৈহাটি পুরসভায় মোট আসন ৩১। ২৯ কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগ দিলেন। নৈহাটি পুরসভা বিজেপির’’। এছাড়াও খানাকুলের পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতিও বিজেপিতে যোগ দিলেন এদিন।

তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মুকুল রায় আরও বলেন, ‘‘এরপর বিধায়কদের বিজেপিতে যোগদানের লাইন পড়ে যাবে’’। কৈলাশ বিজয়বর্গীয় বলেন, ‘‘এটা শুধুমাত্র প্রথম পদক্ষেপ। বাংলায় যেমন ৭ দফায় ভোট হয়েছে, তেমন ৭ দফায় দলবদল হবে’’।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment