কলকাতা 

লক্ষ্য ভোট মেরুকরণঃ দূর্গাবাহিনীকে আরও সক্রিয় করতে জুনেই প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্কঃ বিজেপি যে পঞ্চায়েত নির্বাচনেই এ রাজ্যের দ্বিতীয় রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে তা নিয়ে বাংলার জনরব নিউজ পোর্টাল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার সময় থেকেই বলে আসছে। আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনমুখী কর্মসুচির সঙ্গে পাল্লা দিতে না পেরে আরএসএস-বিজেপি মেরুকরণের রাজনীতির উপর জোর দিয়েছে। আর তৃণমূল নেতাকর্মীদের দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে এ রাজ্যে আরএসএস তার শাখা প্রশাখাকে রাজ্যের তৃণমূল স্তর পর্যন্ত বিস্তার করেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অতিরিক্ত সংখ্যালঘুদের নিয়ে বক্তব্য এদের প্রভাব অনেকটা বৃদ্ধি করেছে।যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংখ্যালঘু উন্নয়নে কতটা কাজ করেছেন তা এখন গবেষণার বিষয়। তবে একথা স্বীকার করতে হবে,সিদ্ধার্থ-শংকর রায়ের মত কাজ তিনি এখনও করতে পারেননি।

যাইহোক,সংখ্যালঘুদের সামগ্রিক উন্নয়ন না করেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচারের জোরে মনে হচ্ছে এরাজ্যে যা উন্নয়ন হয়েছে তার সবটাই হয়েছে সংখ্যালঘুদের। আর এই প্রচারকে সামনে রেখেই আরএসএসের পর এবার হিন্দুদের সংগঠিত করতে সাংগঠনিকভাবে কাজ শুরু করেছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, এই সংগঠনটি এবার মহিলাদের মধ্যে সংগঠন বিস্তারের কাজ শুরু করেছে। যদিও বিশ্ব হিন্দু পরিষদের দূর্গা বাহিনী নামে মহিলা শাখা অনেক আগে থেকেই ছিল।নতুন করে এই দূর্গা বাহিনীকেই ঢেলে সাজাচ্ছে পরিষদ। শৌর্য্য ক্যাম্প নাম দিয়ে আগামী ১৫-২১ জুন হুগলি জেলার ব্যান্ডেলের অদূরে রাজহাটের গায়ত্রী আশ্রমে দূর্গা বহিনী প্রশিক্ষণ ক্যাম্প হবে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রায় সাড়ে তিনশো মহিলা এই শিবিরে যোগ দেবে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদ সূত্রে জানা গেছে,দূর্গা বহিনীর মধ্যে শারীরিক,আত্মশক্তি আত্মিক পাঠ শেখানোর লক্ষ্যেই এই শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রশিক্ষণরত মহিলাদের লাঠি চালানো ,কুস্তি সহ অস্ত্র চালানোর পাঠ এখানে দেওয়া হবে বলে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে। যদিও সংগঠনের এক নেতার দাবি মূলত নারী নির্যাতনের হাত থেকে মহিলাদের সুরক্ষা দেওয়ার উদ্দেশেই তারা এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে। জানা গেছে এবার থেকে নাকি কয়েক মাস অন্তর বিভিন্ন জেলায় দূর্গাবাহিনীর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে,ভোট মেরুকরণের লক্ষ্যেই মহিলাদের মধ্যে উগ্র হিন্দুবাদের প্রচারকে জনপ্রিয় করার উদ্দেশে বিশ্বহিন্দু পরিষদের এই কর্মসূচি।


শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment