কলকাতা 

স্ত্রী রত্নার হেনস্থার হাত থেকে বাঁচতে ভোট কেন্দ্রে নিরাপত্তা চেয়ে কমিশনের দ্বারস্থ শোভন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রবিবার নিজের ভোট কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে হেনস্থার মুখে পড়তে পারেন বলে আশঙ্কা করে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় নিজের নিরাপত্তা চেয়ে লিখিত ভাবে নির্বাচন কমিশনের কাছে আবেদন করেছেন । অভিযোগ পত্রে বলা হয়েছে  বেহালা পশ্চিমের যে বুথে তিনি ভোট দিতে যাবেন, সেখানে তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় তাঁকে হেনস্থা করতে পারেন । অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার এবং মহিলা পুলিশ মোতায়েন রাখার আর্জিও জানিয়েছেন তৃণমূল বিধায়ক।

কলকাতা থেকে প্রকাশিত ডিজিটাল আনন্দবাজারের খবর অনুযায়ী জানা গেছে  এই বিষয়ে বুধবার রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবকে  চিঠি দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। চিঠির প্রাপ্তিস্বীকার করে তাতে ‘রিসিভড’ স্ট্যাম্পও মেরে দিয়েছে কমিশন। চিঠির প্রথমেই শোভন জানিয়েছেন যে, তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদের মামলা চলছে এবং রোজকার অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ও সঙ্ঘাত এড়াতে তিনি অনেক দিন ধরেই আলাদা থাকছেন, নিজের বাড়ি আপাতত ছেড়ে দিয়েছেন। শোভন আরও জানিয়েছেন যে, বেহালার মহারানি ইন্দিরা দেবী রোডে তাঁর যে বাড়ি, তাতে এখন রত্না থাকছেন এবং যে বুথে তাঁকে ভোট দিতে যেতে হবে, সেটি ওই বাড়ির প্রায় লাগোয়া।

এর পরে চিঠির দ্বিতীয় অংশ। সেখানে শোভন লিখেছেন যে, তিনি বিশ্বস্ত সূত্র থেকে খবর পেয়েছেন, ১৯ মে যখন তিনি ভোট দিতে যাবেন, তখন তাঁকে অকারণে হেনস্থা করার পরিকল্পনা করেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর সঙ্গীরা। শোভনের অভিযোগ, তাঁকে আগেও একাধিক বার রত্না ও তাঁর সঙ্গীরা হেনস্থা ও নিগ্রহ করেছেন।

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের আশঙ্কা,  শুধু হেনস্থা বা নিগ্রহ করেই ক্ষান্ত থাকবেন না রত্না, মিডিয়াকে ডেকে পাঠিয়ে তাঁর সম্মান ধুলিসাৎ করার চেষ্টাও করবেন। সে রকম কোনও অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি যেন তৈরি হতে দেওয়া না হয় এবং তাঁকে যেন শান্তিতে ভোট দিতে দেওয়া হয়— কমিশনের কাছে আবেদন শোভনের।

কয়েক মাস আগে রায়চকে গিয়ে যে পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছিলেন তিনি, মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিককে সে কথা শোভন মনে করিয়ে দিয়েছেন। দুষ্কৃতীদের তাণ্ডবে সেখানে তাঁর জীবন সংশয় তৈরি হয়েছিল বলে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী অভিযোগ করেছেন। কমিশনকে প্রাক্তন মেয়রের অনুরোধ, স্থানীয় থানাকে নির্দেশ দেওয়া হোক, বেহালার শিশুভারতী স্কুলের বুথে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়া হোক এবং মহিলা পুলিশ বা মহিলা নিরাপত্তা রক্ষীর ব্যবস্থাও করা হোক।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment