জেলা 

বিজেপির নেতা-নেত্রীর কাছ থেকে বারুইপুরে উদ্ধার হল ২৪ লক্ষ টাকা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মমতা বন্দ্যেপাধ্যায় থেকে শুরু করে তৃণমূলের নেতারা অভিযোগ করে আসছিল যে বিজেপি টাকা ছড়িয়ে ভোট কেনার চেষ্টা করছে । সেই অভিযোগের কতটা সারবত্তা আছে তা জানা না গেলেও এটা বাস্তব যে লক্ষ লক্ষ টাকা সহ বিজেপি নেতারাই ধরা পড়েছে । যেমন আজ ধরা পড়ল বারুইপুরে । সংবাদে প্রকাশ শাড়ির ভিতরে ২৪ লক্ষ টাকা লুকিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ধরা পড়লেন বিজেপি নেত্রীরা। ওই গাড়িতে ছিলেন বারুইপুরের স্থানীয় বিজেপি নেতা মন্টু হালদারও। তাঁর কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকার একটি চেক উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

সপ্তম দফার ভোটের আগে বারুইপুরের বকুলতলায় বিজেপি নেতানেত্রীদের কাছ থেকে এই বিপুল পরিমাণ টাকা উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তৃণমূলের অভিযোগ, বারুইপুরের বিজেপি কার্যালয় থেকে নির্বাচনের কাজে ব্যবহার করার জন্যে টাকা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

যদিও বিজেপির দাবি, মন্টুর নিজস্ব ব্যবসা আছে। উনি ব্যবসার টাকাই নিয়ে যাচ্ছিলেন। এর সঙ্গে বিজেপির কোনও সম্পর্ক নেই।

পুলিশ সূত্রের খবর, বিজেপির পার্টি অফিস থেকে বকুলতলার বুড়োরঘাটের দিকে যাওযার সময় একটি গাড়িটি আটক করা হয়। ওই গাড়িতে ছিলেন স্থানীয় বিজেপি নেতা মিন্টু হালদার-সহ বিজেপির মহিলা কর্মীরা।

তল্লাশির সময় নগদ ২৪ লক্ষ টাকা পাওয়া যায়। উদ্ধার হয়েছে ১০ লক্ষ টাকার চেকও। ওই টাকার উৎস বা কী কাজের জন্য  তা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, সে বিষয়ে কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি বিজেপির নেতানেত্রীরা।

গাড়িচালক সুশীল নস্কর-সহ বারুইপুর মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদক মন্টু হালদার, বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী নমিতা সরদার, সরস্বতী হালদার এবং কৌশিক মণ্ডলকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে বকুলতলা এবং জয়নগর থানার পুলিশকর্মীরা বারুইপুর থেকে কুলতলি যাওয়ার সব রাস্তায় নাকা তল্লাশি চালাচ্ছিলেন। তখনই ওই গাড়িটিকে আটক করা হয়। দুই মহিলা শাড়ির ভিতরে করে নগদ ২৪ লাখ ১২ হাজার টাকা নিয়ে যাচ্ছিলেন। বিজেপি নেতা মিন্টু হালদারের কাছ পাওয়া যায়, ১০ লাখ ৫৪ হাজার টাকার একটি চেক। ইতিমধ্যেই টাকা বাজেয়াপ্ত করার ঘটনাটি রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দফতরে জানানো হয়েছে


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment