কলকাতা 

ছাত্রদের গো-ব্যাক শ্লোগান , বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তি , বাইকে আগুন , চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলায় রোড শো শেষ করতে পারলেন না অমিত ; বাংলার এই বিশৃঙ্খলার জবাব দেবে মানুষ দাবি বিজেপি সভাপতির

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : আশা জাগিয়ে শেষ করতে পারলেন রোডশো । বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ-র উত্তর কলকাতার রোডশো ঘিরে উত্তেজনা চরমে । বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে টিএমসিপির কর্মীদের দফায় সংঘর্ষ , ইট বৃষ্টির ফলে শেষ পর্যন্ত অমিত শাহ রোডশো শেষ করতে পারলেন না । বিবেকানন্দের বাড়িতে গিয়ে তাঁর শ্রদ্ধঞ্জাপন করা হল না বিজেপি সভাপতির । মাঝপথে পুলিশ এই রোডশো ঘুরিয়ে দেয় এবং শেষ করে দেওয়ার অনুরোধ করে ।

শুরুটা মসৃণভাবে হয়েছিল । ধর্মতলার কেসি দাসের পাশ থেকে রোডশো শুরু হয় । এই রোডশো মুকুল রায় , দিলীপ ঘোষ সহ বিজেপির নেতারাই প্রায় সকলেই উপস্থিত ছিলেন । মিছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে আসার পরই বিপত্তি ঘটে । এখানে অমিত শাহ কালো পতাকা দেখানোর চেষ্টা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু ছাত্রছাত্রী । উল্টো দিকে এবিভিপি ও বিজেপির সমর্থকরা এর প্রতিবাদ করতে থাকে । শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে শ্লোগান ও পাল্টা শ্লোগান । ইট বৃষ্টি , জলের বোতল ছোঁড়া । পুলিশ ব্যরিকেড করেও সামলে পারছিল না । তাই শেষ পর্যন্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেন গেট বন্ধ করে দিতে হয় । তারপরেই দুপক্ষের ইট বৃষ্টি চলে । পুলিশকে হিমসিম খেতে হয় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য ।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার পরেই আবার দেখা গেল বিদ্যাসাগর কলেজ চত্বরে আর এক প্রস্থ হাঙ্গামা হয়। এখানে পুলিশ না থাকার কারণে দুপক্ষের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ ধরে সংঘর্ষ চলে বলে অভিযোগ । এমনকি বিদ্যাসাগর কলেজের ভেতরে ঢুকে হামলা চালিয়েছে বিজেপির কর্মীরা বলে টিএমসিপি অভিযোগ করেছে । টিএমসিপি এবং বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সংঘর্ষ ঘিরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি। ইটবৃষ্টি, লাঠি, বাঁশ নিয়ে চলছে সংঘর্ষ। সংঘর্ষ চলাকালীন আগুন জ্বেলে দেওয়া হয়েছে কলেজের সামনে। পোড়ানো হয়েছে বেশ কয়েকটি বাইক।

উত্তেজনা দেখে গাড়ির ভিতরে নেমে গিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ-ও।পুলিশকে লক্ষ্য করেও চলছে ইটবৃষ্টি।পরিস্থিতি মোকাবিলায় লাঠিচার্জ শুরু করেছে পুলিশ। সব মিলিয়ে শেষ দফার নির্বাচনের আগে বিজেপি টিএমসির মধ্যে লড়াই জমে উঠল ।

এদিকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে গন্ডগোল ও আজকের রোড শো প্রসঙ্গে অমিত শাহ বললেন, আচমকা তৃণমূলের কিছু গুন্ডা আমাদের রোড শোয়ে হামলা চালায়। আমাদের কর্মকর্তাদের সঙ্গে হাতাহাতি হয়। আমি মনে করি বাংলার এই বিশৃঙ্খলা, অরাজকতার জবাব মানুষ ভোটবাক্সে দেবেন। আগের বারের চেয়েও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসবে। আমার রোড শো শেষ করতে পারিনি। বিবেকানন্দের মূর্তিতে মালাও দিতে পারিনি।

এই রোড শোতে উপস্থিত ছিলেন  রাহুল সিংহ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়, রূপা গঙ্গোপাধ্যায়, বাবুল সুপ্রিয়, সুরিন্দর সিংহ অহলুওয়ালিয়া, মুকুল রায়, দিলীপ ঘোষ সহ রাজ্য বিজেপির প্রায় সমস্ত শীর্ষনেতারাই।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment