জেলা 

বিজেপি ভোট কিনতে টাকা ছড়াচ্ছে , টাকা পাচারের মূল হোতা স্বয়ং মোদী অভিযোগ মমতার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিজেপি টাকা বিলি করে ভোট করছে বলে এবার গুরুতর অভিযোগ করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি বলেন ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গাড়িতে টাকা পাচার করছেন বিজেপি নেতারা। ভোট কিনতে সেই টাকা ছড়াচ্ছেন বিভিন্ন গ্রামে। তিনি বলেন , রাজ্যের এক বিজেপি প্রার্থী টাকা সহ হাতেনাতে ধরা পড়েছেন জানিয়ে নাম না করে ভারতী ঘোষকে আক্রমণ করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো।

আজ শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী কাকলী ঘোষদস্তিদারের সমর্থনে  অশোকনগরে এক নির্বাচনী সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন , রাজ্যের যেসব বিজেপি নেতারা একসময় খেতে পেতেন না, তাঁরাই এখন কেন্দ্রীয় নিরাপত্তায় টাকা পাচার করছেন। রাজ্যের অনুমতি ছাড়াই ওই বিজেপি নেতারা জেড ও ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। নির্বাচনের আগে তাঁদের কাছে এত ক্ষমতা, টাকা আসছে কোথা থেকে, প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো। তার রেশ টেনেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, নোটবন্দি, রাফালে, জনধন যোজনাকে সামনে রেখে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রচুর টাকা হাতিয়েছে বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে টাকা পাচারের হোতা বলে অভিযোগ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, রাজ্যের কোনো জনসভায় মোদীর হেলিকপ্টার নামলে তার ধারেকাছে সাংবাদিকদের ঘেঁষতে দেওয়া হয় না। কারণ, ওই হেলিকপ্টার থেকে টাকার বাক্স নামে। আর সেই বাক্স স্থানীয় বিজেপি নেতাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো। যদিও তৃণমূলের এভাবে টাকা ছড়ানোর প্রয়োজন পড়ে না । কারণ তৃণমূলের মা-মাটি-মানুষের সরকার বাংলার কোথাও একশো তো কোথাও দুশো শতাংশ কাজ করে ফেলেছে। তাই মানুষের আশীর্বাদ তাঁদের সঙ্গে আছে বলেই দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

উল্লেখ্য, রাজ্যের প্রাক্তন আইপিএস তথা ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে, গত রাতে লক্ষাধিক টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment