দেশ 

মোদী সরকারের ‘ আচ্ছে দিনে ‘ দুকোটি বেকারের চাকরি তো দূর-অস্ত সমীক্ষায় প্রকাশ দেশে ৫০ লক্ষ মানুষ কাজ হারিয়েছে , ভোটের মুখে এই তথ্যে অস্বস্তিতে বিজেপি

শেয়ার করুন
  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মোদীজি বলেছিলেন , দুকোটি বেকারের চাকরি দেবেন । দেশের আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটাবেন । মোদীজির এই কথা যে শুধু কথার মধ্যে সীমাবদ্ধ রয়ে গেল । সম্প্রতি বেঙ্গালুরু এক প্রখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় দেশজুড়ে সমীক্ষায় করে । মোদীর আমলে দেশের বেকারত্ব কতটা কমেছে তা নিয়ে । সেই সঙ্গে নোট বন্দী ও জিএসটির মত আর্থিক সিদ্ধান্তে কতটা লাভবান হয়েছে দেশের মানুষ । আর এই সমীক্ষা করতে সমীক্ষকদের চোখ কপালে ওঠার জোগাড় হয়েছে ।  দেখা গেছে দেশের বেকারত্ব তো কমেনি বরং নোট বাতিল করার পর থেকে ৫০ লক্ষ মানুষ কাজ হারিয়েছে । তাদের জীবনযাত্রা মান কমে গেছে ।

সমীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে প্রধানমন্ত্রী যখন নোটবন্দির কথা ঘোষণা করেন, তারপর থেকে টানা দুই বছরে ৫০ লাখ মানুষ কাজ হারিয়েছেন।

ওই সমীক্ষায় দেখা গেছে মহিলারা সবচেয়ে বেশি  কাজ  হারিয়েছে । আসলে ২০১১ সাল থেকেই  শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বেড়েছে ।  আর এই বেকারত্বে সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মোদীজি প্রচারে দুকোটি বেকারের চাকরি দেওয়ার কথা বলেছিলেন । কিন্ত সমীক্ষায় প্রকাশ বিগত ৪৫ বছরের মধ্যে  ২০১৭ সাল থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে বেকারত্বের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

ভুল জিএসটি-র প্রযোগে বেকারত্বের সমস্যাকে আরও বড়িয়ে দিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে। শুধুমাত্র উচ্চশিক্ষিত মানুষরাই যে এই সমস্যায় রয়েছেন,তা নয়, বেকারত্বের সমস্যা গ্রাস করেছে অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীদেরও।

এদিকে গোটা রিপোর্ট নিয়ে নীতি আয়োগের দাবি, যে রিপোর্টের তথ্যগুলির মধ্যে অনেক কিছুই গোলমাল রয়েছে। শিক্ষাগত ক্ষেত্রে ।

লোকসভা ভোটের মুখে মোদী সরকারের এই ব্যর্থতার চিত্র প্রকাশ হওয়ায় ব্যাকফুটে বিজেপি । অন্যদিকে কংগ্রেস নেতা ও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং নোটবন্দী পরেই বলেছিলেন , এটা দেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করবে । সেটাই বেঙ্গালুরুর বিখ্যাত আজিম প্রেমজি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে প্রকাশিত চাকরি সম্পর্কীয় এক সমীক্ষার রিপোর্টে প্রমাণ পাওয়া গেল ।


শেয়ার করুন
  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment