প্রচ্ছদ 

মমতার কথায় সত্যিই হতে চলেছে ! ক্ষমতায় আর ফিরছেন না মোদী ; রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বাধীন জোটই সরকার গড়বে আন্তর্জাতিক সংস্থার সমীক্ষায় ইঙ্গিত স্পষ্ট

শেয়ার করুন
  • 77
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কয়েকদিন ধরেই বলে চলেছেন মোদীবাবুর দিন শেষ হয়ে গেছে । উনি এখন ‘ এক্সপায়ারিবাবু । তিনি বলছেন , উনি প্রধানমন্ত্রী নন , এক্সপায়ারি প্রধানমন্ত্রী । আর কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও বলছেন , মোদীজির চৌকিদার-ই শেষ হয়ে যাবে । আর মোদী শাহ আবার নতুন করে রাম-মন্দির ইস্যুকে সামনে এনে বাজার গরম করার চেষ্টা করে চলেছেন ।

এদিকে আমাদের দেশের সংবাদ মাধ্যম গুলি একের পর এক সমীক্ষা প্রকাশ করে বিজেপি এবং এনডিএ ক্ষমতায় ফিরছে বলে আভাষ দিয়ে চলেছে । কিন্ত আমাদের সংবাদ মাধ্যম যাই বলুক না কেন ? বিগত কয়েক মাস ধরে এদেশে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন  গবেষণামূলক  সংস্থা দেশ জুড়ে সমীক্ষা চালিয়েছে । সেই সমীক্ষায় উঠে এসেছে আর যাইহোক মোদী কিংবা বিজেপি আর কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসতে পারছে না । দেশের মানুষ নাকি মোদীকে  আগামী নির্বাচনে আর জেতার সুযোগ দেবে না ।

আন্তর্জাতিক সমীক্ষা সংস্থার রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে দেশে বিজেপি আর ক্ষমতায় আসছে না । কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোটের তুলনায়  বিজেপি-র নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট প্রায় ৪৯টি আসন কম পেতে চলেছে বলে ওই সমীক্ষক সংস্থা বলছে ।

এনডিএ বা ইউপিএ- কেউই এবার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না, সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না ফেডারেল ফ্রন্টও। এবার ত্রিশঙ্কু লোকসভা হতে চলেছে ভারতে, এমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলির নির্বাচনী সমীক্ষার ফলে। ম্যাজিক ফিগার থেকে দূরে রয়েছে যাবে ইউপিএ। এনডিও থাকবে বেশ পিছনে।


এই সমীক্ষা রিপোর্ট অনুযায়ী  কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ পেতে পারে ২২১টি আসন। সেখানে বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ পাবে মাত্র ১৭২টি আসন। অর্থাৎ ইউপিএ এবার ৪৯টি আসন বেশি পেতে পারে এনডিএ-র থেকে। সমীক্ষায় প্রকাশ অন্যান্যরা পেতে পারে ১৫৪টি আসন। ফলে কিং-মেকার হতে পারে আঞ্চলিক দলগুলি।

এই সমীক্ষাটি সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে করা হয়েছে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে । তাদের দাবি জনসাধারন মতামতের ভিত্তিতে এই সার্ভে করা হয়েছে । এ থেকে এটা স্পষ্ট ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের পর মোদী আর প্রধানমন্ত্রী থাকতে পাবেন না ।

 


শেয়ার করুন
  • 77
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment