কলকাতা 

কলকাতার রাজপথে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান চালানোর সময় কমপিউটার শিক্ষকদের উপর বেধড়ক মারধোরের অভিযোগ

শেয়ার করুন
  • 267
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতি মা-মাটি মানুষের সরকার বরাবরই বিরূপ । কেন ? সেই ব্যাখ্যা অবশ্য এখনও পাওয়া যায়নি । প্রাথমিক শিক্ষকরা পিআরটি স্কেলের দাবিতে রাস্তায় নেমে আন্দোলন করা সত্ত্বে সরকারের কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি । পার্শ্ব-শিক্ষকদের প্রতিও কোনো উদারতা এই সরকারের দেখা যায়নি । আবার স্থায়ী হাইস্কুল শিক্ষকদের উপর যেভাবে কেরানী কাজ চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাতে যে পড়াশোনা পরিবেশ ব্যাহত হচ্ছে বলে অভিযোগ । কয়েকদিন আগেই মাদ্রাসার চাকরি প্রার্থীদের উপর পুলিশী নির্যাতনের অভিযোগে রাজ্য জুড়ে সরকার ও প্রশাসন সমালোচিত হয়েছে । মঙ্গলবার আবার শিক্ষকদের উপর ঝাপিয়ে পড়ল পুলিশ ।

কম্পিউটার শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপর অমানবিকভাবে লাঠিচার্জ করা হল মিন্টো পার্কে। রাস্তায় বসে শান্তিপূর্ণ অবস্থান চালানোর সময় শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপর চড়াও হয়ে পুলিশ মারধর করে বলে অভিযোগ। এই অভিযোগ উঠেছে রাজ্যের পুলিশের বিরুদ্ধে। যদিও তাঁদের কেউ উর্দি পরেছিলেন না, কেউ পরিচয় পত্রও দেখাতে পারেননি। সাধারণ পোশাকে একদল লাঠি হাতে চড়াও হয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রহার করে।

রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলের  কমপিউটার শিক্ষক-শিক্ষিকারা ন্যায্য বেতনের দাবিতে কলকাতার মিন্টো পার্কে কোম্পানির অফিসের সামনে বিক্ষোভে বসেছিলেন। শান্তিপূর্ণভাবেই অবস্থান-বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন তাঁরা। তাঁদের দাবি ছিল, সরকার বলছে, তাঁদের জন্য বরাদ্দ বেতন অনেক বেশি। অথচ ৬ বছর ধরে আমাদের শোষণ করা হচ্ছে। আমরা মাত্র ৪,৯০০ টাকা পাচ্ছি ভিক্ষাস্বরূপ।

শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রশ্ন, কেন এই দ্বিচারিতা, তা জানার জন্যই আমরা জমায়েত হয়েছিলাম। একদল আচমকা এসে লাঠিপেটা করতে শুরু করে। এই ঘটনায় মহিলাদেরও ছাড়া হয়নি। অনেকের পোশাক ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে। অনেকে গুরুতর জখম হয়েছেন। তাঁদের পিজিতে ভর্তি করা হয়েছে। অনেককে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।


শেয়ার করুন
  • 267
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment