কলকাতা 

সব বুথেই স্বশস্ত্র পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে , বাংলায় সমস্যা আছে বলেই সাত দফায় ভোট হচ্ছে ; ভোটারদের নির্ভয়ে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করতে কমিশন বদ্ধপরিকর : বিবেক দুবে

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  “পশ্চিমবঙ্গে সমস্যা আছে বলেই সাত দফায় ভোট। অন্ধ্রপ্রদেশে এক দফায় ভোট হবে। কিন্তু, এখানে সাত দফায় ভোট। কেন হচ্ছে আপনারাই বুঝুন।” আজ সর্বদলীয় বৈঠক শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে  একথা বললেন কমিশনের স্পেশাল পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।

গতকাল  রাতে রাজ্যে এসেছেন তিনি । আজ সোমবার রাজ্যের সব রাজনৈতিক দলগুলির সাথে বৈঠকে বসেন তিনি। বৈঠকে শাসক-বিরোধীরা একাধিক অভিযোগ আনে। বৈঠক শেষে বিবেক দুবে বলেন, “আমরা চাই সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ অবাধ নির্বাচন করতে চাই।

নির্বাচন পরিচালনা করতে যথেষ্ট কেন্দ্রীয় বাহিনী আছে সব বুথেই সশস্ত্র পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। আমাদের মূল লক্ষ্য সাধারণ মানুষ বা ভোটারদের বিশ্বাস তৈরি করা। যাতে তারা নির্ভয়ে ভোট দিতে পারে।”

শাসক ও বিরোধীদের পরস্পরবিরোধী যে অভিযোগ করছে সেই সম্পর্কে তিনি বলেন, “দেখুন ভালো বা খারাপ সবটাই থাকে। তাই সবার বিরুদ্ধে আঙুল তোলা সঠিক নয়।” ভোটের কাজে রাজ্য পুলিশকে ব্যবহার করা নিয়ে স্পেশাল পুলিশ অবজ়ারভার বলেন, “কখনই সব পুলিশ খারাপ হতে পারে না। তাঁদের মধ্যেও দক্ষ পুলিশ আছে ।

এদিকে, কাল সকালে নবান্নে মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব ও পুলিশের সঙ্গে বৈঠক করবেন বিবেক দুবে। তিনি জানান, যদি কোনও পুলিশ অফিসার, ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট বা নির্বাচনের সঙ্গে যুক্ত কোনও অফিসারের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট অভিযোগ থাকে, কমিশনকে জানালে কমিশন বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বেশ কিছু স্পর্শকাতর বুথ চিহ্নিত করা হয়েছে।

বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে এই সমস্ত জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ঠিকভাবে পাঠানো হচ্ছে না। মানুষ নাকি ভয় পাচ্ছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য কাল দুপুরের বিমানে উত্তরবঙ্গ যাচ্ছেন বিবেক দুবে।  অফিসার রয়েছেন।”

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment