কলকাতা 

মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে নিয়োগ করেছে , তবে যাঁরা বঞ্চিত হয়েছেন বলে মনে করছেন তাঁরা এখনও শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন: আবু সোহেল

শেয়ার করুন
  • 154
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বুলবুল চৌধুরি : মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের চাকরি প্রার্থীদের অনশন মঞ্চে পুলিশ লেলিয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজ্য জুড়ে তীব্র চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে । সোস্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে । মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান রবিবারও দাবি করেছেন , সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই আমরা নিয়োগ করেছি । কোথাও অনিয়ম হয়নি । তবে চাকরি প্রার্থীরা বলছেন নিয়ম-অনুসারে আপ-টু –ডেট ভ্যাকেন্সিতে নিয়োগ করা যেতে পারে । এখানেই নাকি অনিয়ম হয়েছে । এ নিয়ে আমরা যোগাযোগ করেছিলাম মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন বিলোপের পক্ষে মামলাকারী আইনজীবী আবু সোহেলের সঙ্গে ।

আবু সোহেলকে প্রশ্ন করা হয়েছিল . আপনার কী মনে হয় মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশকে অমান্য করে বঞ্চিতদের নিয়োগ করছে না ? এই প্রশ্নের উত্তরে তরুণ আইনজীবী আবু সোহেল বলেন , এটা ঠিক না । সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশকে মান্যতা দিয়েই নিয়োগ করেছে সার্ভিস কমিশন । তবে এ ক্ষেত্রে আমার বক্তব্য হল , যাঁরা চাকরির জন্য আন্দোলন করছেন কিংবা যাঁরা মনে করছেন তাঁরা বঞ্চিত হয়েছেন তাদের জন্য আদালতের দরজা খোলা রয়েছে । সেখানে যেতেই পারেন । সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে আবেদন করতেই পারেন যে তাঁদের প্রতি মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন কোনো সুবিচার করেনি । যদি তাঁদের অভিযোগ সত্য হয় তাহলে অবশ্য শীর্ষ আদালত হস্তক্ষেপ করবে এবং তারা ইনসাফ পাবে বলে আমার বিশ্বাস ।

আপ-টু-ডেট ভ্যাকেন্সি ঘোষণা করে সবাইকে তো নিতেই পারত সার্ভিস কমিশন ; কেন নিল না ? এই প্রশ্নের উত্তরে আইনজীবী আবু সোহেল বলেন , মনে রাখতে হবে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের অস্তিত্ব নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা চলছে । সুপ্রিম কোর্ট শুধু মাত্র ২০১৪ সালে যে পরীক্ষা হয়েছিল, সেই সময় যত শূন্যপদ ছিল তাতে নিয়োগ করার নির্দেশ দিয়েছে এনসিটিই নিয়ম অনুসারে । সুতরাং আপ-টু-ডেট শীর্ষ আদালতের নির্দেশ ছাড়া করতে পারবে না কমিশন । শীর্ষ আদালত এটাও বলেছে এরপর মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নিয়োগ করা যাবে না ।

তিনি আরও বলেন , আপ-টু ডেট করতে গেলে সরকারকে নোটিফিকেশন করতে হবে । এখন করলে হবে না , যখন শূণ্যপদ পূরণের জন্য আবেদনপত্র চাওয়া হয়েছিল তখনই এই বিষয়টি পরিস্কারভাবে বলে দেওয়া উচিত ছিল । তাহলে দাবিটা ন্যায়সংগত হত । তবে তিনি এও বলেন , মাদ্রাসা চাকরি প্রার্থীদের উপর হামলাকারীদের চিহ্নিত করে সরকার তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করুক । আমরা এ বিষয়ে সরাসরি সরকারের পক্ষেই আছি । কিন্ত অহেতুক শান্তিপূর্ণ আন্দোলন পুলিশী হামলা হয়েছে না বহিরাগতরা হামলা করেছে তার তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি ।


শেয়ার করুন
  • 154
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment