কলকাতা 

মাদ্রাসার চাকরি প্রার্থীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জের প্রতিবাদে বৃহত্তর আন্দোলনে নামছে সংখ্যালঘু ও মানবাধিকার সংগঠনগুলি

শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : এসএসসির চাকরি প্রার্থীদের অনশন ভাঙতে না ভাঙতেই আবার কলকাতার মেয়ো রোডে অনশনে বসে যায় মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের চাকরি প্রার্থীরা । আর তাদেরকে জোর করে  তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল কলকাতা পুলিশের বিরুদ্ধে।  অভিযোগ উঠেছে অনশন তুলতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে । পুলিশের লাঠির ঘায়ে গুরুতর আহত হয়েছেন একজন বলে অভিযোগ । এরই প্রতিবাদে আগামী কাল থেকে রাস্তায় নেমে আন্দোলন শুরু করার হুঁশিয়ারি দিয়েছে আওয়াজ নামে এক সংগঠন । ইতিমধ্যে সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআইও এই ঘটনার প্রতিবাদে কয়েকটি জায়গায় মিছিল করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে ।

এক অনশনকারী বলেন, ‘‘এ দিন ভোর ৫টা নাগাদ পুলিশের একটি দল অনশনস্থলে এসে হাজির হয়। মহিলা-পুরুষ নির্বিশেষে সব আন্দোলনকারীকে হটানোর চেষ্টা করে তারা। বাধা দিতে গেলে কয়েকজনকে মারধরও করে।’’ পুলিশের মারে ৫-৬ জন আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ আন্দোলনকারীদের। তাঁদের মধ্যে একজনকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ।

বহুদিন ধরেই চাকরির দাবি জানিয়ে আসছিলেন মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবু শিক্ষকরা। তাঁদের দাবি, ২০১৩ সালে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন যে বিজ্ঞপ্তি ঘোষণা করেছিল, তাতে ৩ হাজার ১৮৩ শূন্যপদ দেখানো হয়েছিল। তা সত্ত্বেও মাত্র দু’হাজারের কাছাকাছি নিয়োগ হয়েছে। কম পক্ষে ২ হাজার ৬০০ শূন্যপদে নিয়োগ করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু তা হয়নি। পরীক্ষায় পাস করেছিলেন যাঁরা, তাঁদের আর তালিকাভুক্তও করা হয়নি। দীর্ঘ দিন ধরে এই সমস্যা সমাধানের দাবি জানাচ্ছিলেন হবু শিক্ষকরা। তাতে কোনও সুরাহা না হওয়ায় চলতি সপ্তাহের বুধবার মেয়ো রোডে প্রেসক্লাবের কাছে অনশনে বসেন তাঁরা।

মুখ্যমন্ত্রী তথা সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধায়ের হস্তক্ষেপ দাবি করেন। তার মধ্যেই বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা নাগাদ সেখানে তাঁদের উপর পুলিশ চড়াও হয় বলে অভিযোগ। আন্দোলনকারীদের দাবি, সরতে না চাইলে তাঁদের মারধর করে পুলিশ।

তাঁদের জোর করে তুলে দেওয়ার তীব্র নিন্দা করেছে শিক্ষা এবং সামাজিক সচেতনতা নিয়ে কাজ করা সংগঠন ‘আওয়াজ’। পড়ুয়াদের নিয়ে শনিবার বিকেলে ৩টেয় প্রেসক্লাবের সামনে বিশেষ প্রতিবাদ সভার ডাক দিয়েছে তারা। তাতে অংশ নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে বিভিন্ন সংগঠনকেও।  প্রতিবাদ জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর-ও।

 


শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment