দেশ 

“নোটবন্দী “তে দূনীর্তির প্রমাণ পেশ করে কংগ্রেস ভোটের মুখে নোটবন্দীকে নতুন করে ইস্যুতে পরিণত করল , কংগ্রেসের চালে কুপোকাৎ বিজেপির দাবি ভিডিও জাল

শেয়ার করুন
  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লোকসভা ভোটের মুখে নতুন করে নোটবন্দী ইস্যুকে সামনে নিয়ে এল কংগ্রেস । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে রাহুল গান্ধীকে প্রত্যেক বিরোধী নেতা দাবি করেছিলেন নোটবন্দী আসলে এক পাহাড় প্রমাণ দূনীর্তি । সেই দূনীর্তি একদিন প্রমাণ হবেই এটাই ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি । আর মঙ্গলবার এক স্টিং ভিডিও সামনে আসার পর নোটবন্দীর দূনীর্তি নিয়ে নতুন করে আসরে নামল কংগ্রেস সহ বিরোধী দলগুলি ।

মঙ্গলবারনোটবন্দিসময়কার ভিডিয়ো রিলিজ করে বিজেপি অস্বস্তি বাড়ল কংগ্রেস। ৩০ মিনিটের ওই ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, নরেন্দ্র মোদী নোটবন্দি ঘোষণা করায়, এক বিজেপি নেতা ৪০ শতাংশ কমিশন দিয়ে পুরনো নোট বদলে নতুন নোট নিচ্ছেন। যদিও এই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে, কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা কপিল সিবলসহ অন্য বিরোধী দলের নেতারা দাবি করেছেন, এই ভিডিয়ো ষোলো আনা খাঁটি। 

আধঘণ্টার এই স্টিং ভিডিয়ো ফুটেজে আহমেদাবাদের সাংবাদিকদের কাছ থেকে নেওয়া। ভিডিয়োটি প্রদর্শনের সময় কংগ্রেসের প্রবীণ এই নেতা ছাড়াও আরজেডি, লোকতান্ত্রিক জনতা দল, ন্যাশনাল কনফারেন্স টিডিপির নেতারা সেখানে হাজির ছিলেন। 

ভিডিয়োয় যে ব্যক্তিকে পুরনো টাকা বদলাতে দেখা যাচ্ছে, তিনি যে বিজেপিরই নেতা, সে দাবি কপিল সিবলের। ওই ব্যক্তির সঙ্গে বিজেপির আরও কয়েক জন নেতাও ভিডিয়োয় ধরা পড়েছেন। ভিডিয়োটি তোলা ২০১৬র ৩১ ডিসেম্বরের পর। মোদী নোটবন্দি ঘোষণা করেছিলেন ওই বছরই, ৮ নভেম্বর।

ভিডিয়োর কথোপকথন থেকে জানা যাচ্ছে, কোটি টাকার পুরনো নোট বদলানো হয়েছে। বক্তব্যের সপক্ষে আর কোনও প্রমাণ অবশ্য দেখাতে পারেননি কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা। 

প্রত্যাশিত ভাবেই বিজেপি নেতৃত্ব ভিডিয়োটিজালিবলে উড়িয়ে দিয়েছে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী তথা বিজেপির অন্যতম শীর্ষ নেতা অরুণ জেটলি ওই স্টিং ভিডিয়ো সম্পর্কে বলেন, পুরোটাইফেক BSY ডায়েরির পর এবার ওরা ফেক স্টিং দেখাচ্ছে। হাতে কোনও ইস্যু না পেয়েফেকারিরউপর নির্ভর করছে বিরোধীরা। ইউপিএ জেটলির কথায়, ‘ফেকারি ক্যারাভান 

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 21
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment