দেশ 

মোদি-রাহুলের লড়াইয়ে এগিয়ে রাহুল গান্ধী, দাবি শিবসেনা সাংসদের

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব নিউজ ডেস্কঃ ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন এখন অনেক দেরি। তার মধ্যেই দেশজুড়ে মোদি বিরোধী আওয়াজ তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল শিবসেনা এখন আর নরেন্দ্র মোদীর পাশে নেই। তারা দাবি করছে নরেন্দ্র মোদি কিছুই উন্নয়ন করেননি। শুধু ভাষণবাজি করে গেছেন। আর মাত্র ৭-৮ দিন পরেই কর্ণাটকে বিধানসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত বিজেপি এবং প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যা বললেন, কংগ্রেস নেতারাও তা বলতে পারবেন কিনা, সে নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। সঞ্জয় রাউত চাঁছা ছোলা ভাষায় বলেন, দেশের মানুষ এখন রাহুল গান্ধীর কথা শুনতে শুরু করেছে। তাঁর সঙ্গে লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি এখন রাহুলের সঙ্গে পেরে উঠতে না পেরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদেরও প্রচারে নামিয়ে দিয়েছেন। তিনি দাবি করেন, কর্ণাটকে বিজেপি কোনও মতেই জিততে পারবে না। কর্নাটকের মানুষ কংগ্রেসের পাশেই থাকবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হেলিকপ্টার প্রচারকে কটাক্ষ করে শিবসেনা সাংসদ বলেন,  কর্নাটকে এখন ধুলো ঝড় চলছে। সেই ঝড়় থেমে গেলে দেখা যাবে কর্ণাটক শুধুই রাহুলময়। আরএসএস বিজেপির ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত শিবসেনার মুখে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর প্রশংসা শুনে বেকায়দায় পড়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। প্রশ্ন উঠেছে তাহলেে কি হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিও মোদিজীর উন্নয়নের ভারতকে সমর্থন করছে না? তা না হলে শিবসেনা সাংসদ যেভাবে পরিসংখ্যান দিয়ে কর্নাটকে বিজেপির ভরাডুবির গল্প শোনালেন, তাতে মনে হচ্ছে আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুুুখে পড়তে হবে। ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনকে ঘিরে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সহ দেশের বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলির মুখ্যমন্ত্রীরা যেভাবে সর্বশক্তি দিয়ে প্রচারে নেমেছেন, তাতে বিজেপির রাজনৈতিক দৈনতাই প্রকট হয়েছে। শিবসেনা সাংসদ বিজেপির সমালোচনা করে আরও বলেন, ‘অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদীরা কর্ণাটক রাজ্যের নেতাদের প্রতি ভরসা রাখতে পারছেন না। তাই দেশ চালানো বন্ধ রেখে প্রধানমন্ত্রীকে ভাষণ দিয়ে বেড়াতে হচ্ছে কর্ণাটকে এসে।’ রাজনৈতিক মহল মনে করছে, কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস  জিততে পারলেে ভারতীয় রাজনীতিতেে কংগ্রেসের আবার পুনর্জন্ম হবে।


শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment