কলকাতা 

কলকাতা স্থিত বাংলাদেশ উপ-দুতাবাসে মুক্তিযুদ্ধের কালরাত্রির স্মরণ সভায় সোমবার (২৫ মার্চ ) বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আইনজীবী ও প্রাক্তন সাংসদ সরদার আমজাদ আলী

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বাংলা ভাষার দাবিতে যে রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম শুরু হয়েছিল ১৯৫২ সালে তারই শেষ পরিণতি হল বাংলাদেশ । ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ এদিন রাতে পশ্চিম-পাকিস্থানের সেনাবাহিনী তৎকালীন পূর্বপাকিস্থান অধুনা বাংলাদেশের নাগরিকদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে । পৈশাচিক হত্যালীলায় মেতে ওঠে পাকিস্থানের সেনাবাহিনী । বাঙালি ‍বুদ্ধিজীবীদের টার্গেট করে হামলা চলে ।

১৯৭১ সালের  ২৫ মার্চের পরদিনেই বঙ্গবন্ধু মুজিবর রহমান ঘোষণা করেন স্বাধীনতার যুদ্ধ । সেই হিসাবে ২৫ মার্চ দিনটি বাংলাদেশের মুক্তি যুদ্ধের ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ন । এই দিনটিকে  যথাযথ মর্যাদা সহকারে বাংলাদেশীরা পালন করে থাকে । বাংলাদেশ সরকার যেমন পালন করে একইভাবে বিদেশে বাংলাদেশ হাই কমিশনও মর্যাদার সঙ্গে দিনটিকে উদযাপন করে থাকে ।

কলকাতায় ২৫ মার্চ সোমবার বাংলাদেশের উপ-দুতাবাসের পক্ষ থেকে দিনটিকে পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । এই উপলক্ষে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে । এই আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখবেন পশ্চিমবাংলার বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী , প্রাক্তন সাংসদ ও প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারন সম্পাদক সরদার আমজাদ আলী ।

সরদার আমজাদ আলী সাংসদ থাকাকালীন সময়ে রাষ্ট্রসংঘে ভারতীয় প্রতিনিধি হিসেবে বক্তব্য রেখেছিলেন । জানা যায় তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী সরদার আমজাদ আলীর বক্তব্যের ভূয়শী প্রশংসা করেছিলেন । আমজাদ সাহেব একজন সুবক্তা , অসাধারন পান্ডিত্য এবং বিশ্লেষণী ক্ষমতার অধিকারী । এহেন একজন ব্যক্তিকে বাংলাদেশ হাই-কমিশন মুক্তিযুদ্ধের কালরাত্রির উপর বক্তব্য রাখার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়ে পশ্চিমবাংলার বাঙালি মুসলিম সমাজকেই সম্মানিত করল বলে ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment