জেলা 

বাংলার পুলিশ এখন তৃণমূলের ক্রীতদাস, নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে অভিযোগ মুকুল রায়ের

শেয়ার করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহারঃ  আজ কোচবিহারে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায় সরাসরি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে টার্গেট করলেন। কোন রাখঢাক না রেখে তিনি জানিয়ে দিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে ভয় পাচ্ছেন। তাই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে বা চেষ্টা চলছে। আমাকে খুন করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এদিনের জনসভায় প্রচুর জনসমাগম হয়েছিল। তিনি কার্যত রাজ্য প্রশাসন কে চ্যালেঞ্জ করে বলেন, পঞ্চায়েত ভোট মিটে যাওয়ার পর আগামী লোকসভা নির্বাচনে আপনারা কেউ পদে থাকবেন না। তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কি হবে?

কোচবিহার জেলার পুলিশ সুপার ভোলানাথ পান্ডেকে উদ্দেশ্য করে বলেন, লোকসভা নির্বাচনের ছয়মাস আগে আপনাকে সরিয়ে দেওয়া হবে। আপনার হাতে বাঁশিও থাকবেনা আর বাশরীয় বাজবে না। তখন কোচবিহার কে সামলাবে? বাংলার জনতা পরিবর্তন চাইছেন। এই পরিবর্তনের পথে বাধা হলে জনগণই প্রতিরোধ করবে। তিনি এদিন তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে কোচবিহারের গীতালদহে পুলিশ আক্রান্ত হয়েছে এ প্রসঙ্গে বলেন, বাংলার পুলিশ তৃণমূলের ক্রীতদাসে পরিণত হয়েছে। এখনতো শুধু মার খাচ্ছে, এরপর বাড়িতে চাকরের কাজ করবে। তিনি বলেন, বিরোধী দলকে সভা-সমিতি করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। অনুমতি দেওয়া হলেও শেষ মুহূর্তে তা বাতিল করা হচ্ছে। যে রাজ্যে বিরোধীদলকে সভা-সমিতি করতে দেওয়া হয় না, সেই রাজ্যে সরকারে বসে থাকার অধিকার নেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সময়ে বাংলার গণতন্ত্রে যে কালীমালিপ্ত করা হয়েছে, তা মোছা যাবেনা।


শেয়ার করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment