দেশ 

লোকসভা ভোটের পরেই ত্রিপুরায় হবে কংগ্রেস সরকার দাবি রাহুল গান্ধীর ; কোন অঙ্কে রাজ্যে পতন হবে বিজেপির জানতে চান ? ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  • 99
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচনের পরেই ত্রিপুরায় নাকি বিজেপি সরকারের পতন হবে । আজ বুধবার রাজ্যের খুমলুঙে নির্বাচনী জনসভায় এই হুঙ্কার দিলেন জাতীয় কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী। গতকালই ত্রিপুরার শাসক দল বিজেপি ছেড়ে দলের সহ সভাপতি সুবল ভৌমিক ফের কংগ্রেসে ফিরেছেন।

আজকের জনসভায় রাহুল গান্ধী রাফাল থেকে শুরু করে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়া করে জানিয়ে দিলেন লোকসভা নির্বাচনের পরেই ত্রিপুরায় বিজেপি সরকারের পতন হবে আর কংগ্রেস সরকারের প্রতিষ্ঠা হবে । তাঁর এই হুঙ্কারের পর রাজ্য রাজনীতিতে চাঞ্চল্য পড়ে গেছে ।

মনে করা হচ্ছে বিজেপির রাজ্য সহ সভাপতি সুবল ভৌমিকের পর এবার শাসক দলের কোনও রাঘব বোয়াল কংগ্রেসে যোগ দিতে চলেছেন। খোদ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাজা প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মা হুঙ্কার ছেড়েছেন- সুবল ভৌমিকের ফিরে আসা হল সেমিফাইনাল। আরও বিজেপি নেতা ও বিধায়ক যোগাযোগ রেখে চলেছেন। তাঁরা যে কোন সময়ই যোগ দিতে পারেন কংগ্রেসে। একাধিক মন্ত্রীও সেই পথে সামিল হবেন।

গত বিধানসভা নির্বাচনে ত্রিপুরায় দীর্ঘ বাম শাসনের অবসান হয়। বাম শাসনের অবসানের নেপথ্যে কংগ্রেস থেকে আসা নেতাদের ভূমিকা ছিল একই সঙ্গে উপজাতিদের সংগঠনও বিজেপির পাশে এসে দাঁড়িয়েছিল । কিন্ত এবারের লোকসভা নির্বাচনের রাজ্যের দুটি আসনেই উপজাতিদের প্রার্থী থাকবে , বিজেপির প্রার্থী থাকবে আর থাকবে কংগ্রেসের প্রার্থী । ভোট কাটাকাটির অঙ্কে কংগ্রেস দল দুটি আসনেই জয়ের আশা রাখছে ।

গতবারের জয়ী সিপিএম এবারও দুটি আসনেই লড়াই করছে। তারাই রাজ্যে প্রধান প্রধান বিরোধী দল। আর কংগ্রেসও বিভিন্ন উপজাতি সংগঠনের মিলিত শক্তি নিয়ে ভোটে নামছে। শুরু থেকেই নজর কাড়ছেন কংগ্রেস প্রদেশ সভাপতি রাজা প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মা।

কিন্তু বর্তমানে এই রাজ্যে কংগ্রেসের একজনও বিধায়ক নেই। ৬০ সদস্যের বিধানসভায় বিজেপির রয়েছে ৩৬ জন বিধায়ক। বিজেপির অভ্যন্তরে ফাটল ধরার পর রাহুল গান্ধীর হুঙ্কারের রাজ্য বিজেপিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। প্রশ্ন উঠছে সুযোগ পেলেই নিজেদের রঙ পালটে ত্রিপুরার সরকারের থাকা বিধায়করা। লোকসভার আগে প্রবল চাপে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব।


শেয়ার করুন
  • 99
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment