দেশ 

দেশের ৯০ কোটি ভোটারের মতদানকে সুষ্ঠ ও অবাধ করতে সাত দফায় লোকসভা নির্বাচনের নিঘর্ন্ট ঘোষণা করল কমিশন

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  দেশের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার প্রয়োগ যাতে সুষ্ঠ ও অবাধভাবে করতে পারে তার জন্য নির্বাচন সাত দফায় ভোট করতে চলেছে । ভোট শুরু হচ্ছে আগামী ১১ এপ্রিল, চলবে ১৯ মে পর্যন্ত। মোট সাত দফায় সম্পন্ন হবে ৫৪৩টি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন। ২৩ মে ফলাফল ঘোষণা । রবিবার সাংবাদিক বৈঠকে এ কথা জানায় জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

৭ টি দফা যথাক্রমে ১১ এপ্রিল, ১৮ এপ্রিল, ২৩ এপ্রিল, ২৯ এপ্রিল, ৬ মে, ১২ মে এবং ১৯ মে। এর মধ্যে সাত দফায় ভোট হবে পশ্চিমবঙ্গে। রবিবার বিকেল পাঁচটায় সাংবাদিক বৈঠক করে লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন। ফলে এ দিন থেকেই কার্যকর হয়ে গেল নির্বাচনী বিধি বা মডেল কোড অব কন্ডাক্ট। উল্লেখ্য, আগামী ৩ জুন শেষ হচ্ছে ষোড়শ লোকসভার মেয়াদ।

কমিশন জানায়, এ বারের ভোটে প্রায় ৯০ কোটি ভোটার তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে দেড় কোটি নতুন ভোটার। সমস্ত রাজ্যের নির্বাচনী আধিকারিক, মুখ্যসচিব, জিডিপি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠকের পর আবহাওয়া, ধর্মীয় উৎসব এবং পরীক্ষার কথা বিবেচনা করেই ভোটের নির্ঘণ্ট প্রস্তুত করা হয়েছে।

এ বারের লোকসভা ভোটে সমস্ত পোলিং স্টেশনেই ভিভিপ্যাট থাকবে বলে জানায় কমিশন। একই সঙ্গে জানানো হয়, ইভিএমে থাকবে প্রার্থীদের ছবিও। ইভিএম স্থানান্তরের ক্ষেত্রে জিপিএস প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। এ বার মোট পোলিং স্টেশনের সংখ্যা প্রায় ১০ লক্ষ। নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগ সরাসরি কমিশনের কাছে জানানো যাবে। ভিডিও তুলে অভিযোগ পাঠানো যাবে কমিশনের কাছে। এ ব্যাপারে কমিশনের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপে ওই অভিযোগ জানাতে পারবেন ভোটার।

পাশাপাশি প্রার্থীদের খরচ নিয়েও এ বার অনেকটা কড়া নিয়ম চালু করল কমিশন। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের খরচও উল্লেখ করতে হবে।

 


শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment