দেশ 

রাফাল ইস্যুতে তদন্ত করে দেখার কথা বলা হচ্ছে মিডিয়ার বিরুদ্ধে। কিন্তু যিনি নিজে ৩০, ০০০০ কোটি টাকার তছরুপের সঙ্গে যুক্ত তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত হবে না কেন? কেন প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর হবে না ? প্রশ্ন কংগ্রেস সভাপতি রাহুলের

শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : গতকালই সুপ্রিম কোর্টের কেন্দ্রের আইনজীবী রাফাল নথি প্রতিরক্ষা দফতর থেকে চুরি হয়ে গেছে । একথা সুপ্রিম কোর্টের ভরা এজলাসে কেন্দ্র সরকার স্বীকার করে নেওয়ার পরেই বিরোধী প্রশ্ন তোলে যে সরকার প্রতিরক্ষা দফতরের গুরুত্বপূর্ণ নথি সংরক্ষণ করতে পারে না , সেই সরকারের হাতে সাধারন মানুষ কী নিরাপদ কিংবা দেশ কী নিরাপদ ? আর বৃহস্পতিবার রাফাল নিয়ে আবার তীব্র ভাষায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনায় সরব হলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী । তিনি বলেন ,এক কদম গিয়ে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে রাফাল নথি চুরি যাওয়ার দায়ে এফআইআর করে ফৌজদারী মামলা করার দাবি জানালেন ।

রাফাল নথি ফাঁস ও চুক্তির তছরুপ সম্পর্কে এদিন মন্তব্য করতে গিয়ে রাহুল বলেন, যাঁরা অন্যায় করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কেন এফআইআর কেন হবে না? এমনই প্রশ্ন তোলের রাহুল গান্ধী।

রাফাল নথি ফাঁস সম্পর্কে কংগ্রেস সভাপতি দাবি, ‘একদিকে আপনারা বলছেন, নথি নিখোঁজ,এটার মানে নথিগুলি সত্যি ছিল। আর সেখানেই স্পষ্টভাবে লেখা ছিল যে প্রধানমন্ত্রী সমান্তরালভাবে দরদাম করছিলেন। ‘
তিনি আরও বলেন , ‘প্রথমে শোনা গিয়েছিল রাফায়েল চুক্তি কোন অপরাধমূলক কিছু হয়নি, তারপর জানা গিয়েছে সেখান থেকে নথি চুরি হয়েছে। ‘ পাশাপাশি তাঁর দাবি যখন প্রধানমন্ত্রীর দফতরের নাম উঠছে তাহলে তারও তদন্ত হোক। এদিন রাফাল চুক্তি নিয়ে ফের একবার চেনা সুরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একাধিক ইস্যুতে তোপ দাগেন রাহুল গান্ধী। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে এফআইআর দাবি করেন কংগ্রেস সভাপতি।

রাহুল এদিন দাবি করেন, রাফাল ইস্যুতে তদন্ত করে দেখার কথা বলা হচ্ছে মিডিয়ার বিরুদ্ধে। কিন্তু যিনি নিজে ৩০, ০০০০ কোটি টাকার তছরুপের সঙ্গে যুক্ত তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত হবে না কেন? পাশাপাশি এদিনও রাহুল গান্ধী দাবি করেন সমান্তরালভাবে এই যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী দরদাম করেছেন।

 


শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment