আন্তর্জাতিক 

জঙ্গী তকমা তোলার আবেদন হাফিজ সঈদের , খারিজ রাষ্ট্রসংঘের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ২০০৮ সালে মুম্বই হামলার পরেই মনমোহন সিং সরকারের আবেদনের ভিত্তিতে জামাত উদ দাওয়া তথা লস্কর ই তৈবা প্রধান হাফিজ সঈদ রাষ্ট্রসংঘ তাকে আন্তর্জাতিক জঙ্গীর তকমা দিয়েছিল । তারপর প্রায় এক দশক কেটে গেছে , তার সংগঠন কিংবা তার ওপর থেকে জঙ্গী তকমা তুলে নেওয়া হোক জামাত উদ দাওয়া তথা লস্কর ই তৈবা প্রধান হাফিজ সঈদ এই আবেদন করেছিল রাষ্ট্রসংঘের কাছে ।  তবে রাষ্ট্রসংঘ সেই আবেদন খারিজ করেছে।

উল্লেখ্য যে, রাষ্ট্রসংঘ নতুন আবেদন এসেছে যাতে জইশ ই মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে জঙ্গি হিসাবে ঘোষণা করা হয়। যা অনেকদিন ধরে পড়ে রয়েছে চিনের আপত্তির কারণে। তবে পুলওয়ামায় হামলার পর আবেদন বেশ জোরালো ভাবে উঠে এসেছে।

হাফিজ সঈদের কার্যকলাপ নিয়ে ভারত গোপন রিপোর্ট জমা করেছে। সেই প্রমাণকে দেখেই রাষ্ট্রপুঞ্জ সঈদের জঙ্গি তকমা সরায়নি।

২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে হাফিজ সঈদকে জঙ্গি ঘোষণা করে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। মুম্বই হামলায় ১৬৬ জনের প্রাণ যাওয়ার পরই এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়। যে তকমা এখনও হাফিজ সঈদের ওপরে লাগু রয়েছে। তার সংগঠনকেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
পাকিস্তানে গৃহবন্দি থাকাকালীন হাফিজ সঈদ ২০১৭ সালে রাষ্ট্রপুঞ্জে জঙ্গি তকমা সরিয়ে নিতে আবেদন করেন। তবে এদিন রাষ্ট্রপুঞ্জ সেই আবেদন খারিজ করে দিল। সেদিন মনমোহন সিং সরকারের কূটনৈতিক চালেই সৈয়দ হাফিজ সঈদকে জঙ্গী তকমা দিয়েছিল রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment