দেশ 

বাবরি মসজিদ মামলা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করার নিদান সুপ্রিম কোর্টের “এই মামলার সঙ্গে ধর্মীয় ভাবাবেগ জড়িয়ে। আমরা পরিস্থিতির সঙ্গে অবগত। এই মামলায় মধ্যস্থতার দরকার আছে “

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বাবরি মসজিদের বিতর্কিত জমি নিয়ে আজ সুপ্রিম কোর্টে শুনানি হয় । আজ শীর্ষ আদালত এই নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নিলেও সব পক্ষকে মধ্যস্থতাকারীদের নাম প্রস্তাব করতে বলেছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ জানান যে খুব শীঘ্রই এই নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আজ আদালতের মূল বিবেচ্য বিষয় ছিল রাজনৈতিক এবং সামাজিক দিক থেকে সংবেদনশীল এই মামলার বিবাদীরা  নিজেরা আলোচনার মাধ্যমে মেটাতে পারে কি না। আজকের শুনানি শুরু হতেই বিচারপতি এস এ বোবদে বলেন, “এই মামলার সঙ্গে ধর্মীয় ভাবাবেগ জড়িয়ে। আমরা পরিস্থিতির সঙ্গে অবগত। এই মামলায় মধ্যস্থতার দরকার আছে। তবে মধ্যস্থতা চলাকালীন কোনও রকম সংবাদ প্রকাশ করা যাবে না সংবাদমাধ্যমে।”

বিচারপতি এস এ বোবদে আরও বলেন, “ইতিহাসের উপর আমাদের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। কে রাজা ছিল, কে দখল করেছিল, প্রথমে মন্দির না মসজিদ, এসব ইতিহাস। আমরা বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে অবগত। আমাদের এই বিবাদের মীমাংসা করতে হবে। সকলকে নিয়েই তা সম্ভব।”

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট এক রায়ে অযোধ্যার রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদের ২.৭৭ একর বিতর্কিত জমিকে রাম লালা, সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ও নির্মোহী আখড়ার মধ্যে সমান তিন ভাগে ভাগ করার নির্দেশ দিয়েছিল। এলাহাবাদ হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে একাধিক আবেদন জমা পড়ে সুপ্রিম কোর্টে। ৪ জানুয়ারি প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বে তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে সেই আবেদনগুলি শোনার কথা ছিল। তাপরপর ৮ জানুয়ারি শীর্ষ আদালত শুনানির জন্য পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ গঠন করে। এই বেঞ্চে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, এস এ বৌবদে, বিচারপতি এন ভি রামানা, বিচারপতি ইউ ইউ ললিত ও বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

 

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment