দেশ 

রাফাল বিমান কেনার সরকারি নথি প্রতিরক্ষা দফতর থেকে চুরি গেছে সুপ্রিম কোর্টে জানালেন কেন্দ্রের আইনজীবী ; যে সরকার নথি সুরক্ষিত রাখতে পারে না , সেই সরকারের আমলে দেশ কী সুরক্ষিত প্রশ্ন বিরোধীদের ; দূনীর্তির প্রশ্নে লোকসভা ভোটের আগে মোদী ও বিজেপি ব্যাকফুটে

শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার সরকারি নথি কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিরক্ষা দফতর থেকে চুরি হয়ে গেছে বলে আজ সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকারের অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল । এরপরেই প্রশ্ন উঠেছে কীভাবে রাফাল নথি চুরি হল ? বিরোধীরা এবার এনিয়ে চপে ধরেছে সরকারকে । যে সরকার প্রতিরক্ষা দফতরের নথি হেফাজত করতে পারে না সেই সরকারের আমলে দেশ কী নিরাপদ ।এ নিয়ে বিরোধী দেশজুড়ে আন্দোলনের পথে যাচ্ছে বলে জানা গেছে । লোকসভা নির্বাচনের আগে রাফাল মামলায় সুপ্রিম কোর্টে সরকারি আইনজীবী এই বক্তব্যে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে গেল মোদী সরকার বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে । বিজেপি সরকারের দেশপ্রেম নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ পেয়ে গেল বিরোধীরা । একইসঙ্গে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর বিখ্যাত শ্লোগান ‘ চৌকিদার চোর হ্যায় ‘ আরও বেশি নির্বাচনে প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠল । প্রশ্ন উঠেছে সরকারি সংস্থা হ্যালকে বাদ দিয়ে কীভাবে অনিল আম্বানীর সংস্থাকে বিমান কেনার বরাত দেওয়া হল ।

বুধবার কেন্দ্রীয় সরকারের অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল সুপ্রিম কোর্টে দাবি করেছেন, প্রতিরক্ষামন্ত্রক থেকে চুরি হয়ে গিয়েছে রাফালের গুরুত্বপূর্ণ নথি। আর যা প্রকাশ্যে আসার পর শোরগোল পড়ে গিয়েছে দেশজুড়ে।

গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর রাফাল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই রায় পুনর্বিবেচনার জন্য আর্জি জমা পড়েছিল শীর্ষ আদালতে। তারই শুনানি শুরু হল বুধবার।

প্রথমদিনের শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টে এই দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় সরকারের অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল। তিনি এদিন সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছেন, এটি খুবই স্পর্শকাতর বিষয়। দেশের সুরক্ষার বিষয় নিয়ে সরকারের তরফে কাজ করা হচ্ছে। প্রতিরক্ষামন্ত্রক থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি চুরি গিয়েছে। সরকারি কর্মচারীরা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত বলে মনে করা হচ্ছে।

কেন্দ্রের তরফে এই যুক্তি দেওয়ার পর প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানতে চান, কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে সরকারি তরফে? অ্যাটর্নি জেনারেল সুপ্রিম কোর্টে জানান, তদন্ত চলছে।

প্রসঙ্গত, ফ্রান্সের দাঁসো সংস্থার কাছ থেকে ৩৬টি অত্যাধুনিক রাফালে যুদ্ধবিমান কিনছে ভারত সরকার। এছাড়া আরও ৯০টি রাফালে যুদ্ধবিমান সংযুক্ত ভারতীয় বায়ুসেনায়।

আর এ নিয়েই বিবাদ বেঁধেছে। কংগ্রেসের অভিযোগ, রাফালে নিয়ে দুর্নীতি করছে কেন্দ্রের মোদী সরকার। নিয়ম ভেঙে হ্যালের বদলে অনিল অম্বানি বরাত পাইয়ে দেওয়া হয়েছে।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এ নিয়ে একাধিকবার তোপ দেগেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে। তাঁর স্লোগান, চৌকিদার চোর। সম্প্রতি একটি ইংরেজি দৈনিকে রাফালের একটি নথি প্রকাশিত হয়। তা নিয়েও হইচই করেছিলেন রাহুল।

এদিন সেই প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল। নথি চুরি করেই তা সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হয় বলে তিনি এদিন সুপ্রিম কোর্টে দাবি করেছেন।

 


শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment