কলকাতা 

“রাজ্যে গণতন্ত্র বিপন্ন , নিজেদের বক্তব্য রাখা যায় না, কর্মসূচি পালন করা যায় না; আমরা দেখি ব়্যালি করলে পুলিশ কতজনকে গ্রেপ্তার করে ” : দিলীপ ঘোষ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিজেপি দলের পক্ষ থেকে দেশব্যাপী সংকল্প র‌্যালির ডাক দেওয়া হয় রবিবার । সেই কর্মসূচি আজ এই রাজ্যেও পালন করে বিজেপি । সেই মতো দুর্গাপুর ইস্পাত নগরী দুর্গাপুরে রাজীব গান্ধি মেলা ময়দান থেকে একটি বাইক র‌্যালির আয়োজন করে বিজেপি।

উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কোনো র‌্যালি করা যাবে না এটা রাজ্য সরকারের নির্দেশ । সেই নির্দেশ মত আজ বাইক  মিছিল করার আগেই  কর্মী সমর্থকদের বাধা দেয় পুলিশ। বন্ধ করে দেওয়া হয় বাইক মিছিল। আটক করা হয় বিজেপি পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোড়ুই সহ প্রায় ৩০ জন কর্মী সমর্থকদের। সমগ্র রাজ্য জুড়ে বিজেপি বাইক মিছিল আটকানো হয় . কোথাও কোথাও লাঠিচার্জ করা হয় ।

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন দিলীপবাবু। সেখানে তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপধ্যায়ের সাথে সাথে পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করেন। যারা শাসকদলের কথা শুনে কাজ করছে তেমন পুলিশ আধিকারিকদের বিরুদ্ধে নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেন। দিলীপবাবু অভিযোগ করেন, ব়্যালিতে যোগ দিতে আসা বিজেপি কর্মীদের জোর করে বাসে তুলে নিয়ে গেছে পুলিশ। তিনি বলেন, কতজনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারে দেখব।

রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা কেন্দ্রেই আজ একসঙ্গে বাইক মিছিল কর্মসূচির ডাক দিয়েছে যুব মোর্চা। কলকাতার প্রায় ৫০টির বেশি জায়গা থেকে বাইক মিচিল বেরোয়। দিলীপবাবু বলেন, দুর্গাপুরে বাইক ব়্যালিতে যোগ দিতে এসেছিল ৬০এর বেশি বাইক। তবে পুলিশ তাদের কর্মীদের গ্রেপ্তার করায় কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে।

দিলীপ ঘোষ বলেন, “রাজ্যে গণতন্ত্র বিপন্ন। নিজেদের বক্তব্য রাখা যায় না। কর্মসূচি পালন করা যায় না। আমরা দেখি ব়্যালি করলে পুলিশ কতজনকে গ্রেপ্তার করে।”


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment