দেশ 

ছেলের জন্য বাবা হিসাবে গর্বিত অভিনন্দনের মুক্তির খবর পেয়ে তার বাবার প্রতিক্রিয়া

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ছেলে পাকিস্তানের হাতে বন্দী রয়েছে এই খবর পাওয়ার পরও বাবা সিমহাকুট্টি কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি । যদিও সমগ্র দেশের মানুষ বায়ু সেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দনের জন্য উদ্বিগ্ন ছিলেন তা সত্ত্বে বাবা কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি । ছেলের মুক্তি পাওয়ার খবর পাওয়ার প্রথম প্রতিক্রিয়া দিলেন বাবা । তিনি বলেন ছেলের জন্য আমি গর্বিত ।

প্রসঙ্গত সিম্হাকুট্টি নিজেও একজন এয়ার মার্শাল (অবসরপ্রাপ্ত)। তাঁর এই পদ-পরিচয়ই সব নয়। এয়ার মার্শাল (অবসরপ্রাপ্ত) সিম্হাকুট্টি ভারতীয় বায়ুসেনার সেই হাতে গোনা পাইলটের মধ্যে অন্যতম, যাঁর ঝুলিতে ৪০ রকমের ফাইটার প্লেন ৪০০০ ঘণ্টারও বেশি ওড়ানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে। পাশাপাশি কার্গিল যুদ্ধের সময় প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি। তবে ছেলের বন্দি হওয়ার খবর শোনার পর গোটা বুধবার তিনি সংবাদ মাধ্যমের কাছে কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি।

বৃহস্পতিবার সিম্হাকুট্টি জানান, নিজের ছেলের সাহসিকতার জন্য তিনি গর্বিত। সঙ্গে আশাপ্রকাশ করেন, নিরাপদেই ছেলে ঘরে ফিরে আসবেন। অন্য দিকে অভিনন্দনের জন্য দেশবাসীর উজাড় করে দেওয়া সমর্থন এবং শুভকামনার জন্য তিনি ধন্যবাদও জানান।সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া পাক কবজায় থাকা অভিনন্দনের ভিডিওটি দেখে তিনি নিজের ছেলেকে এক জন প্রকৃত সৈনিক হিসাবে বর্ণনা করেন। তিনি আশা করেন, প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান অভিনন্দনের উপর কোনো নির্যাতন করবে না। এবং তাঁকে সুরক্ষিত ভাবেই দেশে ফেরত পাঠাবে।

এ দিন সিম্হাকুট্টি বলেন, “আমার সমস্ত শুভাকাঙ্ক্ষীকে ধন্যবাদ জানাই। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাই, অভিনন্দন এখনও জীবিত রয়েছে। শারীরিক এবং মানসিক ভাবে দৃঢ় রয়েছে। সে প্রকৃত সাহসীর মতো কথা বলছে…এক জন প্রকৃত সৈনিক…আমরা তার জন্য সত্যিই গর্বিত”।

উলেখ্য, এ দিনই পাকিস্তানের তরফে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান অভিনবকে ভারতে পাঠানোর কথা ঘোষণা করেন।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment