আন্তর্জাতিক 

ভারতের দাবি মেনে নিঃশর্তেই পাকিস্তান মুক্তি দিচ্ছে অভিনন্দনকে , শুক্রবারই দেশে ফিরবে বায়ুসেনার উইং কামান্ডার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ভারতের দাবি মেনে নিঃশর্তে আগামীকাল পাকিস্তানে ধৃত ভারতীয় উইং কামান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দিতে চলেছে পাক সরকার। তাঁকে ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে নিয়ে আসা হবে। বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা  করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি অভিনন্দনের মুক্তির কারণ হিসেবে বলেছেন ,যাতে দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ তৎপরতা বন্ধ হয় ও উত্তেজনা থেমে যায়, সেই  জন্যই এই পদক্ষেপ। এটাকে ‘শান্তির’ পক্ষে বার্তা বলেই দাবি করেছেন ইমরান খান।

পাকিস্তানের বিমান লক্ষ্য করে ধাওয়া করতে গিয়ে পাকিস্তানে অবতরণ করতে বাধ্য হন ভারতের এই বীর সেনা অফিসার। আর তারপরই পাকিস্তানি সেনা তাঁকে ঘিরে ফেলে গ্রেফতার করে। উল্লেখ্য, এর আগে ভারত জানিয়েছিল উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে ফিরিয়ে আনতে কোনও রকমের দরকষাকষি বা শর্ত মানবে না দিল্লি। বিনা শর্তে পাকিস্তান যেন ফিরিয়ে দেয় উইং কমান্ডারকে। এমনই দাবি করেছিল ভারত। আর সেই দাবি মেনেই আগামীকাল পাকিস্তান ফেরত পাঠাচ্ছে উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে।
‘আমি আপনাকে বলতে বাধ্য নই’, ..ঠিক এই সুরেই পাকিস্তানি সেনা অফিসারদের একাধিক প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন বায়ুসেনার উইং কামান্ডার আভিনন্দন বর্তমান। পাকিস্তানের কব্জায় থেকে সেদেশের সেনার হাতে বন্দি হয়েও , চোখে মুখে রক্ত নিয়েও এতটুকু ভাঁটা পড়েনি তাঁর সাহস কিম্বা দাপটে! আর এখানেই তিনি প্রমাণ করেছেন তিনি ভারতীয় বায়ুসেনার উইংকমান্ডার।

উল্লেখ্য,এই ঘটনার পরই ভারতের তরফে বায়ুসেনা কমান্ডরকে মুক্তির জন্য পাকিস্তানের ওপর চাপ দেওয়ার পালা শুরু হয়। পাকিস্তানের জিও টিভি সূত্রে সেদেশের বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশির বয়ান সামনে এনে বলা হয় – দুই দেশের মধ্যে উদ্বেগ কমলে তবেই বায়ুসেনা কম্যান্ডারকে ফেরানো হবে। কুরেশি বলেন, আমরা আটক ভারতীয় বায়ুসেনা কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ফেরাতে চাই। যদি দুই দেশের মধ্যে শান্তি ফেরে তবেই। আমরা ইতিবাচক সদুত্তরের জন্য তৈরি রয়েছি।

কিন্ত সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত অভিনন্দনকে মুক্তি দিল পাকিস্তান । শুক্রবারই তাঁকে ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাঠানো হবে বলে ইমরান খান জানিয়েছেন ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment