দেশ 

পাক –প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের হঁশিয়ারির পাল্টা প্রত্যাঘাত পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং-র ; ‘ মাসুদ আজহারকে যদি তুলে আনতে না পারেন , তাহলে আমাদের বলুন , আমরাই কাজটা করে দেব ‘

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গী হামলায় ৪৯ জন সেনা জওয়ান শহীদ হয়েছেন এই ঘটনার ৫ দিন পর মুখ খুললেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান । তিনি স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে বলেছেন ওই হামলার সঙ্গে পাকিস্থানের কেউ যুক্ত আছেন কিংবা পাকিস্থানের যোগ আছে এই ভারত দিলেই তিনি কঠোর ব্যবস্থা নেবেন । তাঁর এই মন্তব্যের দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রতিক্রিয়া দেওয়ার আগেই কংগ্রেস নেতা ও পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং ইমরানের এই বক্তব্যের পর কড়া জবাব দিয়েছেন। পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী । মুম্বই হামলার প্রসঙ্গে তুলে তিনি বললেন, মুম্বইয়ের ২৬/১১ হামাকর পর প্রমাণ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই প্রমাণ নিয়েও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি পাকিস্তান।

একইসঙ্গে মাসুদ আজহারের কথাও উল্লেখ করেন অমরিন্দর সিং। ট্যুইটে তিনি লেখেন, ‘বাহওয়ালপুরে বসে আছে মাস্টারমাইন্ড জইশ চিফ মাসুদ আজহার। আইএসআইয়ের সাহায্যে সেই হামলার নির্দেশ দিচ্ছে। সেখান থেকে তাকে তুলে আনুন।’

ইমরানকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যদি তুলে আনতে না পারেন, তাহলে আমাদের বলুন। আমরাই কাজটা করে দেব।’ এর আগেও পুলওয়ামার ঘটনা নিয়ে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চোখের বদলে চোখ, দাঁতের বদলে দাঁতের নীতি নিতে হবে। ৪১ জনের প্রাণ নিয়েছে আমাদের। হামলাকারী দেশের ৮২ জনের প্রাণ নিতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পাকিস্তান এবং জঙ্গি সংগঠনগুলিকে কড়া বার্তা দিতে যত সেনা শহিদ হয়েছেন তার দ্বিগুণ অর্থাৎ ৮২ জনকে খতম করতে হবে৷’ তিনি বলেন, এখনই পদক্ষেপ নেওয়ার সময়৷ কেউ যুদ্ধ করতে যেতে বলছে না, কিন্তু সেনা হত্যা মজা নয়৷ কিছু একটা করতেই হবে৷

তিনি জানান, ক্রমাগত সেনা হত্যার ঘটনায় তিনি বীতশ্রদ্ধ। মঙ্গলবার সকালে লেফটেন্যান্ট জেনারেল কনওয়ালজিত সিং ধিলোন বলেন, জইশ ই মহম্মদ পাকিস্তানেরই সন্তান৷ এই পুলওয়ামাকাণ্ডে পাকিস্তানি সেনার ১০০ শতাংশ হাত রয়েছে বলে জানান তিনি৷ তবে পাক অনুপ্রবেশ অনেকটাই কমে এসেছে বলে আশ্বস্ত করেন তিনি৷

এরপরই ভাষণ দেন ইমরান খান। বলেন, এটা নতুন পাকিস্তান। এই পাকিস্তান শান্তি চায়। তবে আঘাত করলে পাল্টা জবাব যে দেওয়া হবে সেটা স্পষ্ট জানান ইমরান। একইসঙ্গে বলেন, ভারতের সংবাদমাধ্যমে বারবার শোনা যাচ্ছে যে পাকিস্তানের উপর আঘাত হানতে হবে। ইমরান বলেন, ‘আমরা জানি ভারতে সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তার আগে পাকিস্তানের উপর আঘাত হানলে নির্বাচনে লাভ হবে।’

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment