কলকাতা 

বিধায়ক খুনের পর তৃণমূল নেতাদের আত্মসমালোচনা করে ভাবা উচিত তাদের প্রশাসন কী সঠিকভাবে রাজ্য চালাতে পারছে ? প্রশ্ন কংগ্রেস নেতা আইনজীবী সরদার আমজাদ আলীর

শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : শাসক দলের যুব নেতা ও নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসের খুন নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে কংগ্রেস নেতা –প্রাক্তন সাংসদ ও বিশিষ্ট আইনজীবী সরদার আমজাদ আলী বলেন , সন্ধ্যাবেলায় নিজের পাড়ার সরস্বতী পুজোর অনুষ্ঠানে গিয়ে বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হলেন । ওই মঞ্চে একটু আগেই উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী রত্না কর ঘোষ । তাহলে আমার প্রশ্ন বিধায়ক ও মন্ত্রীর নিরাপত্তা কী ঠিকমত ছিল না ? তা না হলে ভোর সন্ধ্যায় কয়েকশো মানুষের উপস্থিতিতে যেভাবে বিধায়ককে গুলি করে খুন করা হল তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ অবশ্যই আছে ।

এক প্রশ্নের উত্তরে বর্ষীয়ান আইনজীবী সরদার আমজাদ আলী বলেন , শাসক দলের নেতারা কার বিরুদ্ধে কী বলছেন সেটা আমার কাছে বিবেচ্য নয় । আমি শাসক দলের নেতাদের অনুরোধ করব জয়নগরের বিধায়কের দেহরক্ষী ও গাড়ির ড্রাইভার খুন হলেন । শোনা যায় বিধায়ক নাকি টার্গেট ছিল । সেই মামলার সমাধান হতে না হতেই আবার নদিয়ার বিধায়ক  সত্যজিৎকে গুলি করে খুন করা হল ।

তাহলে শাসক দলের নেতাদের আত্মসমালোচনা করে ভাবা উচিত কেন তাদের আমলে এই ঘটনা ধারাবাহিকভাবে ঘটে চলেছে ? তাহলে কী তাদের পরিচালিত পুলিশ-প্রশাসন ভেঙে পড়েছে ? এই উপলদ্ধি যখন শাসক দলের নেতারা করবেন তখনই এর সমাধান সম্ভব হবে ।

আর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন , আমি যতদূর শুনেছি বিধায়ক হিসাবে সত্যজিৎ বিশ্বাস ভালো মানুষ ছিলেন । তিনি ফড়েবাজ , দালালবাজের বিরুদ্ধে দলের ভিতরে বাইরে সরব থাকতেন । ফলে তাঁর দলের মধ্যেও অনেকে তার বিরোধী ছিল বলে আমজাদ সাহেব মন্তব্য করেন । তবে মুখ্যমন্ত্রীর উচিত রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে রাজ্যের সাধারন মানুষের কাছে তাঁর প্রশাসনের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর লক্ষ্যে সত্যজিৎ বিশ্বাসের খুনের রহস্য উদ্ঘাটনে নিরপেক্ষ তদন্ত করা।

আর প্রয়োজন হলে যেকোনো নিরপেক্ষ এজেন্সীকে দিয়েও তদন্ত করা উচিত । কারণ মনে রাখতে হবে বিধায়ককে গুলি করে খুন করার ঘটনায় শুধু প্রশাসনের ব্যর্থতা নয় , সমগ্র রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলার চিত্রটি দেশের সামনে প্রকাশ পেয়েছে । রাজ্যের গরিমা নষ্ট হয়েছে । তাই রাজ্যের স্বার্থে বিধায়ক হত্যার তদন্ত নিরপেক্ষভাবে করা উচিত । সেইসঙ্গে দোষীদের কঠোর শাস্তিও দিতে হবে বলে সরদার আমজাদ আলী দাবি করেন ।


শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment